পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৫৮১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মহারাজ বিজয়চন্দ মহাতত্ত্ব। 8bసి मांशॉन-दाँtश्रृंडीज । আইল বরষা,কাল, ছাইয়া আকাশ ভাল, ঢাকি রবি-কর-জাল ছুটছে জলদ দল। প্রভঞ্জন শনশনে, ভগ্ন করে তরুগণে, ভীষণ মেঘ-গর্জনে, কম্পিত সদা ভূতল ॥ আঁধারিয়া চারি ধার, পড়িতেছে বারি-ধার, অনিবার এ আঁধার, বিদ্যুতে বাড়ে কেবল। দিগঙ্গনা মামমুখী, ধরণী মুখ নিরখি, হয়ে পর-দুঃখে দুঃখী, কঁদে বুঝি অবিরল। গেলে এ দুঃখ-যামিনী, পুনঃ হাসিবে অবনী, হইয়া শস্য-শালিনী, পাবে মুখ নিরমল। দুঃখ দেন ভগবান করিবারে মুকল্যাণ, দুঃখান্তে মুখ বিধান, এ নিয়ম অবিচল । শোক ক্ষোভে জ্ঞানোদয়, কষ্ট-ভোগে কৰ্ম্ম লয়, রমেশ-পদে বিজয়, বিশ্বাস রাখ অটল। ঝিঝিট-পোস্ত। শরত-কমলমুখী, নবীনা বধূর স্তায়। হয়ে মত্ত হংস-রবে সদা নুপুর বাজায় ॥ রাজীব জলে বিরাজে, নব ধান্তে শীষ সাজে, হরিত বসনে সেজে, শরত এল ধরায় । শশাঙ্ক সুরথে সাজে, তারকাবলীর মাঝে, বরষা পলায় লাজে, তটিনী পূরিত-কায়। বহে মন্দ সমীরণ, সুশোভিত উপবন, হরষিত প্রাণিগণ, ভূমে কুসুম লুটায়। র্যাহার এ সুস্বজন, মধুময় ত্রিভুবন, বিজয় ভকতি ভাবে ডাকে সেই বিধাতায় ॥ ঝিাঁঝট-আiদ্ধা । সুশাস্ত হেমন্ত আভা শোভিল বহুধা ভালে। স্বর্ণ-বর্ণ শস্ত গুলি হাসিছে গগন-তলে ॥ কৈশোরগতে যৌবন, শীতের দেখি এখন, নিস্তেজ রবি-কিরণ, শৈত্য সলিলে আনিলে। অজস্র করে শিশির, গাথিয় হার মতির, যতনে প্রকৃতি যেন, দিতেছে অবনী-গলে। যিনি এ বৈচিত্র্যময়, স্বজিছেন ঋতুচয়, সঁপ প্রাণ হে বিজয়, তার শ্ৰীপদরাতুলে। 4. ঝিবিটি ধাস্বাজ-কাওয়ালী। শরত কিশোর শীত শিশুসম সুকোমল । * বিমল চন্ত্ৰিক হাসি মধুময় নিরমল। সুচঞ্চল চিত তার, এই হাসে পরিষ্কার, তখনি দেখি আবার, ঝরে অশ্রু অবিরল। সলিলে মরাল গুলি, করে যে মধু কাকলী, লীলাময় বালকের, নূপুর রব কেবল । মাঠেতে হরিত ধান, সুশীতল করে প্রাণ, শরতের কলেবরে, যেন শু্যামল অঞ্চল। বহে ধীর সমীরণ, বিকশিত ফুলগণ, বুক পোরা মুখে যেন, নদী জল ঢলঢল। অধীর জলদ রবে, ময়ূর নাচে গরবে, fজয় শরতে ভাবে, বিভু পদ শতদল ৷ জয়জয়ন্তী—স্বীপতাল । ধরায় অমরা-নিন্দি অলকা সুখ-আগার। জনম ভূমির মত বল কোথা আছে আর ॥ যথা ক্ষুদ্রতরু লতা, থাকে মরমেতে গাথ, বায়ু সদা স্নেহ-কথা, কহে কাণে অনিবার।’ এস্থান জননী সম, ত্ৰিলোকেতে নিরুপম, মায়ের হৃদয় সম, শুভ প্রেম পরিবার। যেখানেতে ঘাটে মাঠে মুখ স্মৃতিফুল ফোটে, পশু, পক্ষী, পতঙ্গট, মনে হয় আপনার। স্বাস্থ, ধন, মান, আশে, ছাড়িয়া হেন স্বদেশে, দেশান্তরে যায় যেবা, কত কষ্ট হয় তার। ত্যজি আজি নিজালয়, চলিলাম হিমালয়, শ্ৰীপদে হিমাদ্রি-সুতে, অপিয়া দাসের ভার। বিজয় তব তনয়, কোথাও করে না ভয়, চিন্ময়ী মায়ের কোলে, মুখেতে দেয় সাতার। финанац на হাম্বিয়—কাওয়ালী। হেরি হিমধরাধরে, জুড়াই নয়নমনে। মনোলোভা শু্যামশোভা, ধবলাচলচরণে ॥ শতমণিমৃতিধর হেমাঙ্গ মনোহর, যত দেখি তত আঁখি মোহে নববিভাগুণে। ভীমকান্ত এ মুরুতি, অনন্ত শোভা-বসতি, - হেরি চিত বিমোহিত, শয়নে দেখি স্বপনে।