পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৫৮৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


মাইকেল মধুসুদন । 8ቖW@ ঝিঝিট-মধ্যমাণ । এই তো সে কুসুমকানন গে৷ পাইয়েছিলেম যথা পুরুষরতন। সই পুর্ণ শশধরে, সেইরূপ শোভা ধরে, সেই মত পিকবর-স্বরে হরে মন। সেই এই ফুলবনে, মলয়ার সমীরণে, মুখোদয় যার সনে, কোথা সেই জন । প্রাণনাথে নাহি হেরি, নয়নে বরিধে বারি, এত দুঃখে আর নারি, ধরিতে জীবন ॥ পিলুবরোয়া—সুংরি। আরে পরবশ মন। পরে জানিবে পর যে কেমন ॥ ছি ছি মন পরের অরে, কি হবে যতন করে, পরস্পর হবে পরে, সদা জ্বালাতন ॥ পরাধীন মন যার, বাচিয়া কি ফল তার, বিনা দহে অনিবার, দহে সেই জন । কেন মন পরের লাগি, হও সদা অনুরাগী, হতে হবে দুঃখভাগী যাবত জীবন ॥ আশা-গৌরী—আড়। অমুখী ভ্রমরদলে। নলিনী মলিনী ক্রমে বিষাদে সলিলে ॥ অবসান দিনমান শশী প্রকাশিত কুমুদী ংেরি হাসিলে, যুবক যুবতী, হুরষিত অতি, বিরহিণী ভাসিছে আঁখি-জলে ৷ চক্রবাক চক্রবাকী বিরহে ভাবিত, কপোতীপতি-মিলিত, নিশি আগমনে কেহ সুখি মনে, কার মনঃ দহিছে দু:খানলে । ধানী-যুলতান-কাওয়ালী। শুনিয়ে মোহন, মুরল গান। করি অনুমান, গেল বুঝি কুলমান ॥ প্রাণ কেমন করে, সুমধুর স্বরে, ধৈর্য মন না ধরে, সাধ সতত হয় খাম দরশনে, লাজ ভয় হ’লে৷ অবসান ॥ 費 নারি সহচরী, রহিতে ভবনে, ত্ৰিভঙ্গ—শুম—বিহনে, চিত যে বঞ্চিত তুরিত-মিলনে, না দেখি তাহার সুবিধান ॥ ভৈরবী—কাওয়ালী। যাইতেছে যামিনী, বিকসিত নলিনী। প্রিয়তম দিবাকর হেরিয়ে, প্রমোদিনী, ভানু-ভামিনী, শশী চলিল তাই হেরে বিষাদে বিমলিনী কুমদিনী, অতি দুঃখিনী। মধুকর ধায় মধুর কারণে ফুল বনে বিহঙ্গের মধুর স্বরে মোহিত করে প্রমোদ ভরে বিপিন চরে, নবতৃণাসনে হরষিত মনোহারিণী ॥ কাফী-জংলা—যৎ । } মনে বুঝে দেখ না। এ মান সহজে যাবেন তা কি জানন ॥ যে করে তোমারে যতন আতি, চতুরী তাহার প্রতি, তার প্রতীকার না হলে আর, কোন কথা কবে না । যে দোষে তোমার মনে মোহিনী, হয়েছে অভিমানিনী, সে দোষে এ বিধি, হে গুণনিধি, পায়ে ধীরে সাধনা & ஆறாம்ம বেহাড়-পোস্তা । মুমতি ভূপতি তুমি ওহে মহারাজ। 強 সুখে থাক ধনে মানে, রিপুগণে দিয়ে লাজ। পাইলে হারানিধি, প্রিয়তমা পুনরায়, বাসন পূর্ণ হলো, মুখে কর রাজকাজ । হয়ে সুবিচারে রত, কর বহু যশোলাভ, যেমন শোভে ক্ষিতি, তারাপতি দ্বিজরাজ। .