পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৭১১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


s সৰ্থ নয়নে শুধু জনাৰে প্রেম, নীরবে দিবে প্রাণ। রচিয়া ললিত মধুর বাণী, আড়ালে গবে গান ৷ গোপনে তুলিয়া কুসুম গাথিয়া, রেখে যাবে মালা গাছি। মন চেয়ে না শুধু চেয়ে থাক, শুধু ঘিরে থাক কাছাকাছি ॥ মধুর জীবন মধুর রজনী, মধুর মলয়-বায়। এই মধুরী-ধার বহিছে আপনি, কেহ কিছু নাহি চায়। আমি আপনার মাঝে আপনি হারা আপন সৌরভে সার, যেন আপনার, মন আপনার প্রাণ আপনারে সপিয়ছি ৷ фАннатай.(hi মিশ্র সিন্ধু—একতলা । দিবস রজনী আমি যেন কার, আশায় আশায় থাকি। (তাই ) চমকিত মন চকিত শ্রবণ তুর্ষিত আকুল আঁখি ॥ চঞ্চল হয়ে ঘুরিয়ে বেড়াই, সদা মনে হয় যদি দেখা পাই কে আসিছে” বলে চমকিয়ে চাই, কাননে ডাকিলে পাখী । জাগরণে তারে না দেখিতে পাই, থাকি স্বপনের আশে ; ঘুমের আড়ালে যদি ধরা দেয়, বাধিব স্বপন-পাশে ; এত ভাল বসি এত যারে চাই, মনে হয় না ত সে যে কারে নাই ; যেন এ বাসনা ব্যাকুল আবেগে, তাহারে আনিবে ডাকি ৷ बिध्न-भिकू–७क७ोला । আমি হৃদয়ের কথা বলিতে ব্যাকুল শুধাইল না কেহ। সে ত এল না, যারে সঁপিলাম । এই প্রাণ মন দেহ ॥ সে কি মোর তরে পথ চাহে, সে কি বিরহ-গীত গাহে, যার বাঁশরী-ধ্বনি শুনিয়ে আমি ত্যজিলাম গেহ । সিন্ধু—কাওয়ালী। নিমিষের তরে সরমে বধিল মরমের কথা হোল না । জনমের তরে তাহারি লাগিয়ে রহিল মরম-বেদন ॥ চোখে চোখে সদা রাখিবারে সাধ, পলক পড়িল, ঘটিল বিষাদ, মেলিতে নয়ন মিলাল স্বপন, এমনি প্রেমের ছলনা। ককুভ—কাওয়ালী । দেখে, সখা, ভূল রূরে ভালবেস না। আমি ভালবাসি ব'লে কাছে এস না। তুমি যাহে মুখী হও তাই কর সখা, আমি মুখী হব বলে যেন হেস ন ॥ আপন বিরহ লয়ে আছি আমি ভল, কি হবে চির আঁধারে নিমেষের আলো, আশা ছেড়ে ভেসে যাই, যা হবার হবে তাই, আমার অদৃষ্ট-স্রোতে তুমি ভেসে না। বেহাগ- আড় ঠেকা । আমি কারেও বিনে শুধু বুঝেছি তোমারে। তোমাতে পেয়েছি আলো সংশয়-আঁধারে ॥ ফিরিয়াছি এ ভুবন, পাইনি ত কারো মন, গিয়েছি তোমারি শুধু মণের মঞ্চারে। এ সংসারে কে ফিরাবে, কে লইবে ডাকি, আজিও বুঝিতে নারি, ভয়ে ভয়ে থাকি ; কেবল তোমারে জানি, বুঝেছি তোমার বাণী, তোমাতে পেয়েছি কুল অকলপাথরে । (ΑμψΦwwφτω