পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৭৭৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


وR)مواوR ' হারে ভারতের ধূলি, (তোতে) বিবাদ বুঝি আছে মিলি, তাই তোতে জন্ম যাদের, তাদের সর্বনাশ ঘটিল। দেশের এ প্রকৃতি ব’লে, অবজ্ঞা করে সকলে, আমাদের দেখায়ে বলে,সভ্য আবার অসভ্য হল। ভৈববী—কাওয়ালী । আহারে বাঙ্গালী বাবু যাই বলিহারি! কত রূপ ধর তুমি অপরূপ ধারী ॥ শিবের ছিল অষ্টমূৰ্ত্তি, তোমার হল শতমূৰ্ত্তি, রসনায় তব গুণ কি বণিতে পারি। ব্ৰহ্মা রূপে স্বজন কর, বিষ্ণুরূপে কলম ধর, শিবরূপে কত ঢাল ব্রাণ্ডি সাম্পেন সেরি ॥ (কভু) সাহেবী মেজাঙ্গে চল, কতু শিব দুর্গ বল, কত রকম ভাব তোমার, কিছু বুঝতে নারি। কছু মুরগীর ঝোল খাও, কভু গয়ায় পিণ্ড দাও,

  • বিদেশে পরমব্রহ্ম, হিন্দু গেলে বাড়ী । নানা স্থানে ভাব নান, কিছু যে বোঝা যায় না। : অস্ত নাহি পেলাম তোমার, সদা ভেবে মরি। । সত্য ভিন্ন মুক্তি মাই, পাট হয়ে রওরে ভাই, । বহুরূপী হইওনারে, কপট আচারী। । নাহি রে তোর ধৰ্ম্মাধৰ্ম্ম, কর পশুর মত কৰ্ম্ম । যদি দেখ শ্বেত চৰ্ম্ম, অমনি গোলাম তারি ; ; সদা করযোড়ে রও, মস্তকে পাদুকা বও, । বাড়ী এসে গোফে তাও, বাবুগিরি ভারি ॥ । দিনে একশ আটবার, কর ভারতের উদ্ধার, ' ভারতের তরে তোমার, কত জাকজারি । । মুখেতে মালসার্ট মার, এয়স কর তেয়সা কর, কাজের বেলা হাজ গুটিয়ে মার টেনে পাড়ি।

ঝিঝিট-যৎ । বাঙ্গালী বড় বুদ্ধিমান, কে বলে সংসারে। এমন বোক কোথাও না, দেখি যে কাহারে ॥ দেশের প্রতি নাই মমতা, বিদেশীয়ের পায়ের জুতা, যা করে ইংরজে তাই, ভাল তার বিচারে। বাঙ্গালী বাবু বার, এমন হত মুর্থ তারা, গুটী চুরটের লেগে, অম্বর তামাক, ছাড়ে ॥ বাঙ্গালীর গান। সাচ্চ আতয় গোলাপ ত্যজে, বিলাতী বিলাসে মাজে, কত টাকা উড়ায় তারা ভস্ম ল্যাভেণ্ডারে ॥ দুদিন স্কুলে গেলে, দেশী খাওয়া যাম ভুলে, পরমান্ন ছেড়ে তুষ্ট, গোমাংস-আহারে ॥ ওরে গোমাংস এ গরম দেশে, নিতান্ত যে সৰ্ব্বনেশে, বৈদ্যশাস্ত্রের সার কথা, হেসে উড়ায় তারে ॥ কোন বাবু বিলেত গিযে, আসেন দেখ সাহেব হয়ে, পৃথিবী চমকে তার হাটের বাহারে। গরমির দিনে গরম কোট, পয়েতে বিলাতী বুট, লোগায়ে বান্দর সাজেন, ইংরাজ নকল করে। দিবানিশি চিন্তা কিসে, ইংরেজের সঙ্গে মিশে, তাদের পদতলে পড়ে থাকিবেন ডিনারে ॥ ভাই বন্ধু বেরাদারে,আপনার বলতে লজ্জা করে চটে যান বাবু বলে, ডাকিলে তাহারে ॥ সাহেবের মূৰ্ত্তি ধরে, থাকেন পঞ্চমেতে চড়ে, ইংরাজী ভালেতে মন্ত আহারে বিহারে । বদনে বিরাজে সদা, বাঙ্গালীরা বড় গাধা, দেহ মন জর্জরিত, ইংরাজী বিকারে । যতই বুদ্ধি রাখরে ভাই, দেখে বলিহারি যাই, দেশশুদ্ধ ছিছি শুন, তোমার এ ব্যভারে ॥ কেনরে এ বিড়ম্বনা, বিদেশী এ ভাব ছাড় না, ( দেখ) এত কর তবু তারা, পুছে না তোমারে। আলেয়া-কাওয়ালী । এমন করে কত দিন আর কাটবিরে বল। কত দিনে মান ত্যজে হবিরে সরল ॥ দিনে দিনে হলি জীর্ণ, ক্রমে ক্রমে অবসন্ন, তথাপি হৃদয় পূর্ণ, অভিমান গরল ॥ মান অপমান ছাড়ি, আয়ুরে সবে কাজ করি, যে কাজ যে করতে পারি, তবে ত মঙ্গল । আমি উচ্চ জাতির ছেলে, এই অভিমানে ভুলে, নিতান্ত যে অকৰ্ম্ম হলে, গেলে রসাতল ॥ ঐ যে চাষা চাষ করে, কে বলিবে ছোট তারে, সেও যেমন তুমিও তেমন, সমাস যে সকল ॥ কেবা ছোট কেবা বড়, যেই যেই কাৰ্য্যেতেiদড়, সেই সেই কাৰ্য্য কর, পাইৰে সুফল। 1