পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৮১৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


૧૨.8 বাঙ্গালীর গান । মূলভাল—টিমেতেতালা । শুাম, চরণ ছাড়িয়ে কেন দেওনা । আমি কি রূপসী ছার, আমা হতে আছে আর, চন্দ্রাবলীর কুঞ্জে কেন যাওন। চন্দ্রাবলীর কুঞ্জে বসি, পোহাইলে সকল নিশি, এখন প্রভাতে এসেছ বুঝি দিতে বেদন ॥ কত কোটি চন্দ্র চন্দ্রাবলীর মুখে, তব চাদমুখে তুলনা পায় না। সে চাদ চকোর হয়ে, আছে ভুমে লুটাইয়ে, ছি ছি, তা দেখিয়ে লাজ পাওনা ॥ সীমস্তিনীর সিতের সিদূর তব শিরে চিহ্ন দেখিতে পাওনা,— হে নাগর, তোমারে বলি, ঐ চিহ্নে লাগবে ধূলি, ছি ছি শ্ৰীহাত তুলিয়ে লওনা । বুধভানু-রাজনন্দিনী সঙ্গে লয়ে সব গোপিনী, যৌবন-ভরে ডগমগ হংসগতি রাই কামিনী । তুলি ফুল গাথি মালা, সাজিল রাই রাজবালা, রূপে ভুবন করে আলা সুধাংশুবদনী ধনী ॥ ঝলমল কুণ্ডল রবি যেন মণ্ডল, সিন্দূর শোভিছে ভালে মেঘের কোলে সৌদামিন s নানা বেশ করি, রূপ বাঢ়াইনু, তামূলে ভরিনু ডালা। জাগি সারা রাতি, গাথিনু মালতী, তবু না আইল কাল ॥ কুঞ্জে পাঠাইয়ে মোরে, রইল গিয়ে কার মন্দিরে, নিশি পোহাইয়ে গেল গৃহে যাই কেমন করে ॥ এ রূপ-যৌবন লয়ে পশিব যমুনা-নীরে। কুঞ্জে কুঞ্জে বুলি বুলি, বনফুল আনিলাম তুলি গাধিলাম হার মনের মত,সাজাইলাম থরে থরে। সকলি হইল বৃথা, তারে এখন পাব কোথ, মনে ছিল কত কথা, কহিব শুমি নটবরে ৷

  • иниманіцы

বঁধু র’ও রাও, ৰাকী মদনমোহন কুঞ্জে যাওয়া হবে না নাথ, রাই অভিমান করেছে। (মোদের প্যারা) কোকিল কপোত সব, হুইয়াছে নীরব, সারীশুক-শিখি আদি স্বস্থানে প্রস্থান করেছে। রাই আমাদের কুলবালা,নাহি জানে প্রেমন্ত্ৰালা চরাতে ধেনু, রাই বলে বাজাতে বেণু— ধূলোয় দিতে গড়াগড়ি ॥ রাজা হ’লে রাসবিহারী, দ্বারে তশত দ্বারী, ভেঙ্গে দিব জারিজুরী আমরাও, রাজমহিষী রাজার নারী ॥ ভুলে থাক কর মনে, কি করেছ নিধুবনে, বসন কোড়া হাতে ল’য়ে করেছ কোটালী-গিরি l; ( রাইয়ের ) ধেনু বংস আদি লয়ে, মাঠে মাঠে যেতে ধেয়ে, আগে আগে যেতে বয়ে, নন্দের পায়ের বাধা মাথায় করি ॥ আর এক দিনের কথা কর দেখি মনে । কি কথা না বলেছিলে বন নিধুবনে ॥ বলেছিলে সব সখী হও তোমরা প্রজা । আমি হব কোটাল রাই, তুমি হবে রাজা। তমালের পত্র পড়ি তাহাতে লিখিয়ে । চরণে দিলি যে রাধার কঁদিয়ে কঁদিয়ে ॥ নৃপতি মুখ বাঞ্ছসি মাধব, ব্রজে কি আশ পুরে নাই । নন্দরাজ-সুত কিবা (নইলে) ছোট রাজা বলিতাম রাই ছাড়ি আওলি হরি, কি দুঃখে তা বল না, তোমার বসন ভূষণ রাজ-আভরণ, ( প্রণাধু) এও কি নন্দের ছিল না, এখন, যা চাবে তা দিব হে মাধব, ( অমন লাকা ) কুজা মোদের ব্রজে নাই ॥ আমার অঙ্গনে আওব যব রসিয়ারে । কব কব কব কথা, কথা কব না গো ॥ আমি একবার পালটী চাব, মান করে রব বসে, নাগর কত সাধবে এসে, চাব চাব চাব ফিরে চাব না গো ॥ আমার যেমন আদর তেমনি হল, পর শশী স্বরে এলো ॥ $

wf