পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৮৩৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করার কোনো প্রয়োজন নেই।


নীলকণ্ঠ মুখোপাধ্যায়


(তোমার দাস দাসী ধায় বনে )
 ( নিশ্চিন্ত আছ কেমনে)
পাণ্ডব হরি বইত জানেনা হে)
 (মুখে হরি বলে আর নয়ন গলে )
 কি গুণ দেখে ভক্ত মরে কেঁদে ॥ ( কৃষ্ণহে )
 আজ পাণ্ডবেরা পরে বাকল, দেখে সকল,
কৃষ্ণহে পরাণবিকল,
 মৃত্যু হলে ভাল ছিল, বেঁচে আর কিবা ফল,
(যে এখনি নরপাল )
 (সে আবার পথের কাঙ্গাল )
(হায় সে রাজছত্র কোথায় গেল )
 (হরি এই কি তোমার মনে ছিল হে )
 ( কৃষ্ণদাস পড়িল প্রমাদে। (কৃষ্ণহে )

নীলকণ্ঠ মুখোপাধ্যায়


বর্দ্ধমান জেলার ধরনী গ্রামে নীলকণ্ঠ মুখোপাধ্যায়ের নিবাস। ইহার যাত্রা অতি প্রসিদ্ধ। ইহার বয়ঃক্রম অনুমান ৬০ বৎসর। কিন্তু ইহার কণ্ঠস্বর এখনও সুধাশ্ৰাবী । ইহার গানগুলি কণ্ঠের পদ বলিয়া বর্দ্ধমান ও বীরভূম জেলায় খ্যাত এবং অধিক পরিমাণে আদরণীয়।

 (আমার ) বৃথায় দিন গেল হে হরি।
আমি ভজন সাধন কখন করি ॥
প্রভাত শৰ্ব্বরী, উঠি মনে করি,
তুলসী-কুসুম চয়ন করি,
তোমার এমনি মায়া যোগ, হয় না মনোযোগ,
ভূতের বেগার খেটে মরি।
বৃথা ভবে আসা, বৃথা সব ভরসা,
দুরাশা সাগরে ডুবে মরি।
আমার কেও নাই বন্ধু, গৃহে দীনবন্ধু,
এই ভবসিন্ধু কিসে ভরি ॥
অভিলাষ করি, হৃদয়েতে ধরি,
শমণ-দমন চরণ তরি ।
আমার রইলো মনে সাধ, হরিষে বিষাদ,
বিবাদ ক'ল্লেন ছয়জন অরি ॥
পলাইতে চাই,পথ নাহি পাই,
কুসঙ্গ রয়েছে ঘেরি।
আছে চতুর্দ্দিকে বসে বেঁধে মায়াপাশে,
রমানাথ ভাবে কি ঝকমারি ॥

(জীবের) আমা বলা সাজে না রে ।
হরি তোমা ভিন্ন আর বিশ্বরূপ কি আছে সংসারে
হরি আমি যদি আমার হতেম,
 তা হলে কষ্ট পেতাম,
 মারা জেতাম সত্য ষাটবারে,
 ওমন এমনি পাজি, কভু রাজি, না হয় সত্বরে।
এই দেহের মধ্যে কে যে আমি,
তাই যদি জানলেম না আমি,
তবে আমি, আমি কি কোরে,
ঐ আমি বলে কর্ত্তা সাজা পাগলামি করে।
নীলকণ্ঠ কহে পাপসাগরে,
আর কতদিন ভাসবি নীরে, অকূল পাথারে,
হরি দেওহে তরি, চরণতরি, লওহে পার করে।

(আমার) কতদিনে হবে সে প্রেম সঞ্চার।
 কবে বলতে হরিনাম, শুনতে গুণগ্রাম,
অবিরাম নেত্ৰে বহে অশ্রুধার ॥
(কবে) সুরসে রসিক হইবে রসনা,
জাগিতে ঘুমাতে ঘুষিবে ঘোষণা,
 কবে যুগল মন্ত্রে হবে উপাসনা,
 বিষয় বাসনা ঘুচিবে আমার।
কত দিনে হবে সৰ্ব্ব জীবে দয়া,
কত দিনে যাবে গৰ্ব্ব মোহ মায়া,
কত দিনে হবে খৰ্ব্ব মম কায়া,
 নত হব লতা যে প্রকার ॥
 কত দিনে হবে জ্ঞানোদয় মম,
 কত দিনে যাবে ক্রোধ কাম তমঃ,
 কত দিনে হব তৃণাদির সম,
রজেতে লুণ্ঠিত হব অনিবার ॥
কবে যাবে আজি কুলেরই ভরম,
 কবে যাবে আমার ভরম, সরম
কবে যাবে আমার, ধরম করম,
 কত দিনে যাবে লোকচার।
করে পরশমণি করব পরশন,
 লৌহ-দেহ আমার হইবে কাঞ্চন,