পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৮৩৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


बैौलकॐ बुरर्षां★ांथां$ । s ૧8હ তাওয়ার ফেলে দেবে জ্বালার উপর জ্বাল। মায়াকুল বালা রে ;– চিংড়ি হয়ে যদি লুকাতে চাওদলে, পড়তে হবে তোমায় কুমতির ঘুণ জালে, যদি হওরে লেঠা, ঘট্টবে বিষম লেঠা, ফেট জালে শেষে মরবি ঘুরে । আট ঘাটে চৌম্বড়া লয়ে সন্ধ্যাকালে, আসতে আঁসতে লয়ে ঘটে গিয়ে ফেলে, পলুই চাব ল’য়ে কেউ বা আগালে, দিবানিশি তার বেড়ায় ঘুরে । সাধন ঘাটে দিয়ে ভজন পুজন চাড়া, ফেললাম গুরুদণ্ড হুইল তগি দাড়া, ওরে সে চারায়ু না খেলি, লক্ট্রকায় শটুকায় মলি, হ’লি জলাঞ্জলি রে। এখন প'ড়েছ যে যে কাতে, ভব শটুকাতে কণ্ঠ বলে অন্ত পারবে না আটকাতে যদি পার নিতে, যাতে জুতে, হরিনাম সেই রত্নাকরে ॥ হরি কেমন করে এমন ঘরে করি বাস। এ যে ভবনদীর কূল, ভাবনা অকুল, কুলকুল শব্দ করে বারমাস ॥ যতন করে গৃহ বধিলামৃ যতবার, নদীর কাল-বেগে ভাসায় তত বার, এমন দুই একবার নয়, আশীলক্ষ বার, এবার বড় মনে লেগেছে ত্ৰাস। যদি বলি আমি পলাব স্থানান্তরে, সম্মুখে কাল নদী দেখে মরি ডরে, চতুর্দিকে আছে কণ্টকেতে ঘেরে, দারা সুত আদি ক’রে, এক স্বরে আমার নয় দিকেতে বাট, কোন দ্বারে দিতে মেরেছি কপাট, ঘর নয় আমার পঞ্চভূতের মাঠ, বয় কত বিভীষিকা কত কুবাতাস ॥ বালা নামে এক পিশাচী আসিয়ে, পিশাচী-মায়াতে মোহিওঁ করিয়ে, বাসা নাচা কাধীশ্ন কত ভয় দেখায়, কত বিষ্ঠা মূত্র গায়েতে মাখায়, আমি ভয়ে মরি হরি করি হা হুতাশ । মধ্যাহ্ন সময় বড়ই কষ্টকর, যু নামে ব্যাঘ্র দীর্ঘ কলেবর, খেদাড়িয়া বেড়ায় দেশ দেশাস্তর, স্থানে স্থানে নিরন্তর, এই ধরে যখন এলো সন্ধ্যাকাল, এ পাপ বলে আমার ঘঠিল জঞ্জাল, জর নামে এক রাক্ষসী করাল, মুখ মেলে আসে করিতে গ্ৰাস ॥ ছয় জন প্রতিবাদী আমার ছয়জন প্রতিবেশী, সময় পেলে তারা গলায় লাগায় ফাসী, দুষ্ট দাগাবাজ বড় অবিশ্বাসী, মিয়াদ খালাসী। তার কেউ সিঁদেল চোর, কেউ গাজখোর, কেউ আছে সদা মদে হ’য়ে ভোর, প্রতিবেশীর দোষে ঘটে বিপদ মোর, • তারা রটায় আপদ ঘটায় সৰ্ব্বনাশ ॥ জন্ম মৃত্যু দুটো সৰ্প ভয়ঙ্কর, এই স্বরে বাস করে নিরস্তর, . দংশন বৃশ্চিক কৃমি কীট নিকর, রোগ শোক বহুতরপ্রতিবেশীর দোষে আমি পড়ি দণ্ডে, কত দণ্ড হরি পাই দণ্ডে দণ্ডে, কতু অগ্নি-কুণ্ডে, কভু-নরক-কুণ্ডে, কতু হেট মুণ্ডে, গর্ভ কারাবাস। এইরূপে নীলকণ্ঠের কাল যায়, অনন্ত যন্ত্রণা নাহি সহা যায়, ( কি হবে উপায় ) ভক্তের ঠাকুর তুমি শাস্ত্রে শুনতে পাই, এ পাপ রাজ্য ছেড়ে তোমার কাছে যাই, অভয় পদ চাই, ভবভয় এড়াই, হতে চাই তোমার দাসমুদাস ॥ দিবে হে কি ধন শ্ৰীমধুসূদন। যদি হরি দিতে চাও আপনার শ্ৰীচরণ, ঐ চরণ তিন তো হরি করেছ সমর্পণ, এক পদ গয়াসুরে, আর এক পদ ফণি-শিরে, আর এক পদ বলি-শিরে, আর যত ভক্তবৃঙ্গ তারা কি করবে সাধন ॥