পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৮৪৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


W. ૧૯8 ভাল ব্যবসা পেতেছ রাধাকান্ত, কারে কাদাও করে কর শাস্ত ; পেতেছ ভবের খেলা, ব্ৰহ্মাও তোমার লীলা, নীলকণ্ঠ কয় যাবার বেলায় যেন দেখা হয়। இகற আমি কৃষ্ণময় জগত দেখি । বৃক্ষমূলে শাখা, শিধিপুচ্ছ পাখা, কৃষ্ণরূপ মাখামাখি ॥ যে সময় আমি যে স্থানেতে যাই, অধ উৰ্দ্ধ আদি দশদিকেতে চাই, কৃষ্ণ ভিন্ন অন্ত দেখিতে না পাই, আমি যেদিকে ফিরাই আঁখি । নয়ন মুদিয়ে থাকি যে সময়, হৃদি মাকে কুষ্ণরূপ দৃষ্ট হয়, নীলকণ্ঠ কয়, মহা ভাবোদয়,তন্ময় ভাবের শাখি। প্রেমরত্ব ধন রাখিতে হয় গোপনে । তারে করিয়ে সঙ্গোপন, করতে হয় আলাপন, যেন নিরূপণ হয় না লোকের স্বপনে ॥ যেমন অগ্নি রয় ভৰ্ম্মে আচ্ছাদিত, কিন্তু দগ্ধগুণ থাকয়ে বিদিত, যেমন প্রতিপদের শশী না উঠে প্রকাশি, অথচ শশী থাকে গগনে ॥ নীলকণ্ঠ কয় রাখিতে, সদা গোপনে হয় কথা কহিতে, যেমন দর্পণের প্রতিকায়, সকলে দেখিতে পায়, কিন্তু ধ’রতে পারে না কোনজনে ॥ কি কাজ ভূষণে, দরশনে। কি ভূষণ এখানে আছে,সকল ভূষণ ল'য়েগেছে, নয়ন ভূষণ শুম দরশন, শ্রবণ ভূষণ বঁাশীর গানে হদিপদ্মে শ্ৰীপাদপদ্ম ছিল যে ভূষণ, পাদপদ্ম করেছিলেম করিয়ে যতন, (এখন) সে পঙ্ক ছেড়ে পদ্ম গেছে, আর কি ভূষণ তাতে সাজে, 帶 পদ্ম" : আছে পাদপদ্ম ভূষণ বিহনে দেহের ভূ-"সেই কালাটাদের দেহ; ु फूुन रिकिहन अिर्षन जल इङ् िपाश्, बांधौलौन्न ग्रांम । আর কি পুন পাৰ তাহে, মিলন করবো দেহে দেহে, দেহের ভূষণ সাজাৰে দেহে, শীতল হবে তাপিত প্রাণ ॥ তোমরা সহচরী সবে কর এই কাম, আমার অঙ্গে, প্রতি অঙ্গে লেখ কৃষ্ণনাম, ভূষণ লাগি প্রাণ আছে, সেই নাম লেখ সৃদয় মাঝে, কণ্ঠ বলে লেখা আছে, চেয়ে দেখ চরণপানে ॥

ও মন ভাবিলে বল কি আর হবে। ওরে যা আছে কপালে, ফলবে কালে কাhে; কৰ্ম্মস্থত্রের ফল আপনি ফলিবে ॥ বিধি যা লিখেছেন কপাল উপরে, কার সাধ্য তাহা খণ্ডাইতে পারে, বল, বুদ্ধি, বিদ্যা পৌরুষে কি করে, যা ঘটবার তা ঘটবে। আদ্যশক্তি যেই জগদ্ধাত্রী, কটাক্ষেতে যার হয় স্থষ্টি স্থিতি, র্তার পুত্রের করা-শুণ্ড, পিতার অজামুণ্ড, পাগল পতি কহে সবে ॥ পাণ্ডুকুলোদ্ভব যুধিষ্ঠির প্রভৃতি, যাদের রথে হন শ্ৰীকৃষ্ণ সারথি, র্তার কৰ্ম্মদোষে, গেল বনবাসে, নারিতে রাখে কেশবে ॥ দেবাহুর মিলে সমুদ্র মস্থিলে, যার যেমন ভাগ্য সেই তেমূমি পেলে, দেখ তার সাক্ষী, হরি পেলেন লক্ষ্মী, হরের কি বিষ সত্তবে ॥ রামচন্দ্র ব্রহ্ম সনাতন, তার সীতা হয়ে দশানন, স্বৰ্ণলঙ্কা তার হলো ছারখার, হয় সবংশে নিধন, বিধির লিপি কে খণ্ডবে। কণ্ঠ কয় একবার ভাবরে অদৃষ্ট, অক্টের ফল মিলাইবেন কৃষ্ণ, কর ঐ পদে মন ইষ্ট নিষ্ঠ, এ ভবনগ্রণী:স্বাবে :