পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৮৫১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


রপিকচন্দ্র চক্রবর্তী । আছে জীবাত্মাতে আবির্ভূত, ব্রহ্মরূপ পরমাশ্মীরে মোর, বুঝেছি তা বিনোদিনি, . খ্যাপারসিক বলে (হাক্স রে) হয়েছিলো, উন্মদিনী,— স্তরে ধরতে হলে, ধর আগে জীবাত্মারে (রে) । ঘটেছে তোর প্রেমের বিকার। • gli fl- (ও ঐমতি)–(তাই প্ৰলাপ যে বকিস্লে, মনু তুই কি সাহসে আজও বসে খেলিস্ তাস। বিভীষিকা দেখে )। নাই হুতাশ, সৰ্ব্বনাশ, যাবে লো তোর এ বিকার, প্রায় হ'ল- পঞ্চাশ কাবায়ু, হবে তবে নিৰ্ব্বিকার,—যদি gেন নিৰ্ব্বিকার ॥ তবু ছাডুলিলে পঞ্চাশকাবার,— ( ও শ্রীমতি )–(নৈলে রোগ ত যাবে না, তোর ফুরাল দিন, আর কত দিন, কৃষ্ণ মুখভোগ বিনে) । খেলবিরে ইস্তক পঞ্চাশ ॥ αμπη και আপন দোষে হারাইলি হাতের পাঁচ, আমি যে দিকে ফিরাই আঁখি, ব্যোম পঞ্জা চেপেছে বাড়ে, তবু সবই কৃষ্ণময় দেখি,— কি তোর নাইরে লাজ, তাই সখি বলি তো সবারে, তাসে মত্ত হলি ভুলে নিজ কাজ, (মনজুখে )–( এমোর বিচার ত নয় লে৷ কুপড়তায় বাধালে ল্যাঠা,হাতে স্বৰু সাতাআটা, এ যে নিৰ্ব্বিকারের কথা) । নাইকো ফিরাই, বিষম ফেরায়, আর বিকার হোলে দেলো বিষ, , পড়িলি হলি নৈরাশ । কেন মিছে জ্বালা দিস, কেমনে তাস খেলাতে বল হবি জী, খাটু বিষ যাতে বিকার বাবে ॥ হাতে রং থকৃতে দশের পিঠে তুরুপ করলি কই, ( ওলো সখি, ) (খেয়ে মরি মরবলে, ক্রমে ক্রমে দশ দশ টেক্কা সব গেল কই, হরি বলে বিষ খেয়ে) ॥ " তুই টেঙ্কা রং রাখলি হাত রাখলিনে কুড়িসত এখন বাজে রংএর সাতার পিঠে মোরা কেন বিষ দিব তেরে, দিতে হবে টেক্কা 에t며 || বিষেতে 게 গুণধরে,-হরিনামে —)শ্ৰীমতি مه ۱۹۹۹ ماه مه তোমার সাধের চোঁদ পড়বে ধরা, (তাকি জন নালে হরিনামের গুণ)। ধরবে গোলাম কাল শমন,— এ ত্ৰিলোকে কে না জানে, তখন আরো জান্‌ৰি জ্বালা কেমন, প্রহ্লাদ বঁচে বিষপানে,... সদাশিব হোলেন মৃত্যুঞ্জয় । “তোর বিপক্ষ করে, ওমন গোলাম (বিষখেয়ে, (ঐ নামের বলে লেবিপদহরী হ:ি বলচোঁদ বাচাবি কি করে,—রসিক বলে, খেলায় হেরে, লাভ করিরে পরিহাস ॥ তবে সে নামে যে বিষ মরে, so সেই বিষ দেলো মোরে, কীৰ্ত্তন। অমৃত নামেতে আছে বিষ। সৰি জইন মাধবীতলে, মাধব দাড়য়ে ছিল (ওলোসবি) (খেয়ে ময়ৈৰচিলে, (মনমোহনের বেশে সেই ভঙ্গি শুমের বিরহানলে, ) , ৰক৷ বাকী আঁখি }—হায় হয়, কি হবে লে। সে অমৃতে, শ্রামের অধরস্থিতে SDDt BBB BB BB BBBBBS BB BB BBBS BB BTS (জারে মিশিল আলে, (ভোর এ রোগ আর রবে না, অধরাতে আয়োগ্য হবে)।