পাতা:বাঙ্গালীর গান - দুর্গাদাস লাহিড়ী.pdf/৯৩৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিরঞ্জীব শৰ্ম্ম । প্রকৃতি-মাধুর্ঘ্য রসের আধায়, মেহের প্রতিমা; প্রেমের অবতার, তুমি মাত সকলের মূলাধার, (দয়াময়ী গে) সাধু ভক্ত সন্তানের ছবিলাসিনী । sআলেয়া—আড়াঠেকা । নারীর হৃদয়ে মাগে বিহরিছ বরাননে। তব রূপ যেন তথা হেরি পবিত্র নয়নে ॥ যশীলা মুন্দরী সতী, লজ্জাশীল পুণ্যবতী, তোমার প্রেম-মুরুতি, হরে পাপ দরশনে । আই, কি মধুর ভাব, কমনীয় সুস্বভাব, বিদ্যাশক্তি মুক্তিমতী, রঞ্জিত প্রেম-রঞ্জনে। আলেয়—যং । (এবার) হরি-প্রেমানলে জলে হ’ব বঁটি সোণ, আপনার রূপে আপনি মঞ্জে করব প্রেম-সাধনা | ভক্তের পদ-যুগলে, নুপুর হয়ে নাচব তালে, বাজব রুণু ঝুমু বেলে মধুর বাজনা। সোণার বরণ গৌর অঙ্গে, মিশে যাব প্রেমরঙ্গে । গেীর-সঙ্গে হরিনাম করিব ঘোষণা। আলেয়া-কীৰ্ত্তন-তেওট। কবে সহজে ম বলে জুড়াব প্রাণ। (দয়ামরি গো ) এমন কি আছে যেমন মিষ্ট মায়ের নাম। আমি পারি কি তোমায় ছেড়ে, থাকিতে এ সংসারে, আছে তোমার সঙ্গে যে আমার প্রাণের টান ॥ শিশু ছেলের মত, ডাকিব নিযুত, করব কোলে বসে স্তন্য-সুধাপান ; এবার পুজিব মায়ের চরণ, হেরিব মায়ের আনন, ( বড় সাধ গো ) এবার গাইব বদন ভরে মায়ের গান ৷ ৰিভাষ-ঝাপত্তাল। ঈদয়-কুটীর মম কর নাথ পুণ্যাশ্রম। বিরাজ আনন্দে তাতে দিবা নিশি অবিরাম। জীবন কর আমার প্রেম-পরিবার, গৃহ-দেবতা পিতা হয়ে থাক হে আহার ; মঙ্গল শালনে সদাকর শাসন। W-8の আমি প্রতিনি ভক্তিভরে, করিব পুজা অৰ্চনা, h কৃতাঞ্জলিপুটে করিব চরণ বন্দন; নিত্য নব নবজাত প্রেমহারে, সাজাব তব সিংহাসন মুন্দর করে; গলবস্ত্র ইয়ে, তোমায় করিব অভিবাদন ॥ আমার রিপু-পরিচারিকদল আনন্দে মিলে সকল অনুদিন করিবে তত্ব সেবার আয়োজন; ইচ্ছায় ইচ্ছ। মিলিবে, বিচ্ছেদে মলিন হবে, তব প্রেম-আবির্ভাবে আত্মা হবে স্বৰ্গধাম ॥ ওরে মন পাখী চাতুরী করবে বল কত আর। বিধাতার প্রেমের জলে পড়বে না কি একবার। সাবধানে ঘুরে ফিরে, থাক বাহিরে, জাল কেটে পালাও উড়ে,ফকি দিয়ে বার বার । তোমায় এক দিন কঁদে পড়তে হবে , সব চালাকি ঘুচে যাবে, অন্ন জল বিনে যখন করবে দুঃখে হাহাকার । যেনিবাধের বলে, কাল সাপে দংশনে, জলিয়ামরিবে প্রাণে, দেখবে চক্ষে অন্ধকার। তখন আপন হইতে পোষ মানিবে, t তাড়াইলেও নাহি ৰ'বে । পিঞ্জরে বলে হরির গুণ গাইরে নিরস্তর। | ம்_து. i একতাল।। _ চল চল ভাই, গৌর-প্রেম-তীর্থধ্যমে যাই । এমন আনন্দধাম আর কোথাও নাই রে । আনন্দ মনে, সম্বনে বদনে, সকলে মিলে হরিগুণ গাই ; হেরি আজ প্রাণভরে চৈতষ্ঠ গোসাঞী। ( রে প্রাণের ) কে নিবিরে আয়, বলে গোর রায়, যাচে হরি প্রেম শুন রে সবাই। গীেরুপ্ৰেমতরঙ্গে ডুবে হৃদয় জুড়াই। (রে) (গোর) হাসে কাদে গায় পাগলের প্রায়ু, মুখে হরিপ্রেম করে তার সদাই; এস আজ গেীরভাবে নাচি আর গাই রে। হরি বলে গেীর-প্রেমবসে মিশে এক হয়ে ঘাই (3