পাতা:বিবিধ কাব্য - মাইকেল মধুসূদন দত্ত.pdf/৫৪

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
৪৬
মধুসূদন-গ্ৰন্থাবলী

অার যত অলঙ্কার—কার সাধ্য গণে?
কিন্তু চেয়ে দেখ সবে, কি অাশ্চর্য্য! দেখ—
রকত বরণে দেখ, সহসা অাকাশে
উদিছেন এ পৌরব বংশ-অাদি যিনি,
নিশানাথ! দুর্য্যোধনে ভূশয্যায় হেরি
কুবরণ হইলা কি শোকে সুধানিধি?”
পাণ্ডব-শিবির পানে ক্ষণেক নিরাখি
উত্তরিলা কৃপাচার্য্য;—“হে কৌরবপতি,
নহে চন্দ্র যাহা, রাজা, দেখিছ অাকাশে,
কিন্তু বৈজয়ন্তী তব সর্ব্বভূক্‌রূপে।
রিপুকুল-চিতা, দেব, জ্বলিয়া উঠিল।
কি বিষাদ অার তবে? মরিছে শিবিরে
অগ্নি-তাপে ছটফটি ভীম দুষ্টমতি;
পুড়িছে অর্জ্জুন, রায়, তার শরানলে,
পুড়িল যেমতি হেথা সৈন্যদল তব!
অন্তিমে পিতায় স্মরে যুধিষ্ঠির এবে;
নকুল ব্যাকুলচিত সহদেব সহ!
অার অার বীর যত এ কাল সমরে
পাইয়াছে রক্ষা যারা, দাবদগ্ধ বনে
অাশে পাশে তরু যথা;—দেখ মহামতি।


সিংহল-বিজয়

 স্বর্ণসৌধে সুধাধরা যক্ষেন্দ্রমোহিনী
মুরজা, শুনি সে ধ্বনি অলকা নগরে,
বিস্ময়ে সাগর পানে নিরখি, দেখিলা
ভাসিছে সুন্দর ডিঙ্গা, উড়িছে আকাশে