প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বিষাদ-সিন্ধু এজিদ্‌-বধ পর্ব.pdf/২৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8 এজিদ-বধ পৰ্ব্ব । দয়াময় জগদীশ্বর র্যাহাঁদের রাজ্য, তাহাদের হস্তেই পুনঃ অৰ্পণ কুরিলেন । আমাদের জালা, যন্ত্রণ, দুঃখ সকলই ইহকাল পরকাল হইতে উপশম হইল। আমরা দুই হস্ত তুলিয়া সৰ্ব্বশক্তিমান ভগবান সমীপে প্রার্থনা করিতেছি যে, মহারাজুধিরাজ জয়নাল আবিদিনের রাজমুকুট চিরকাল অক্ষুন্ন ভাবে পবিত্র শিরে শোভ করুক। আমরাও মনের সহিত রাজসেবা করি। পূণ্যভূমি भनिङ्गि बशैनश् झेश्च। 'ब्रिकोण গৌরবের সহিত সংসারযাত্র 'নিৰ্ব্বাহ করিতে থাকি। মদিনার অধীনতা স্বীকার করিতে কাহার না ইচ্ছা হয় । আমব সৰ্ব্বাস্তুকরণে মহারাজ জয়নাল আবিদিনের মঙ্গল কামনা করি। আজ মনের আনলে নবীন মহারাজের বিজয় ঘোষণা করিয়া মনের আবেগ দূর হইল । শাস্তি-মুখে মুখী হইয়। ভাগ্যবান হইলাম’। বক্তার কথা শেষ হইতে ন হইতেই, সাহী দরবাব হইতে সহস্র মুখে “জয় জয়নাল আবিদিন”‘রব উচ্চারিত হইয়া প্রবাহিত বায়ু সহিত প্রতিবোগিতায় প্রতিধ্বনি হইতে লাগিল। জয় জয়নাল আবেদিন । সকলেই নতশিরে নবীন মহারাজের সিংহাসন চুম্বন করিলেন। এবং যথোপযুক্ত উপঢৌকনাদি রাজগোচর করিয়া অধীনতা স্বীকার করিলেন । ইহকাল এবং পরকালের আশ্রয়দাতা, রক্ষাকৰ্ত্ত বলিয়া শত শত বার সিংহাসন চুম্বন করিলেন। সে সময় সাদীয়ানা বাদ্য বাদিত না হইয়া, রণ বাদ্যই বাজিতে লাগিল। কারণ এজিদের কোন সংবাদ নাই । এজিদ বধের কোন সমাচার প্রাপ্ত হওয়া যায় নাই । দরৱার বরখাস্ত হইল। মহারাজ জয়নাল আবিদিন গাজী বহুমানের মন্ত্রনায়, জননী, ভগ্নী, এবং অন্যান্য পরিজনকে কদীগৃহ হইতে রাজপুরী মধ্যে আনয়ন করিতে ওমর আলী, আকেল আলী সহ রাজপ্রাসাদ হইতে বন্দীগৃহে যাত্রা করিলেন। অন্যান্য রাজাগণ কিঞ্চিৎ বিশ্রাম মুখ প্রয়াসী হইয়া, বিশ্রামভবনে গমন করিলেন । দ্বারে দ্বারে প্রহরী খাড়া হইল । সৈন্তাধ্যক্ষগণ, সৈন্যগণ, দামস্ক সৈন্তনিবাসে याईब्र,, সজ্জিত কক্ষ সকল, নিদিষ্টরূপ গ্রহণ করিয়া বিশ্ৰামমুখ অনুভব করিতে লাগিলেন।