প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বিষাদ-সিন্ধু এজিদ্‌-বধ পর্ব.pdf/৩৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চতুর্থ প্রবাহ। আশ। মিটিবার নহে। মানুষের মনের আশা, পূর্ণ হইবার নহে। ঘটনার স্বত্রপাত হইতে শেষ পর্য্যস্ত অনেকের মনে, অনেক প্রকারের আশার সঞ্চাব হয়। আশার কুম্ভকে মাতিয়, অনেকে পথে অপথে ছুটয় বেড়ায় । ঘটনাচক্রে যতদূর গণ্ডাষ্টয়া লইয়া যায়, তাহাতেই বোধ হয় যেন, পুব্ব আশা পূর্ণ হইল। এই পূর্ণ বোধ হইতে হইতে ২য়, ৩য়, ৪র্থ, এমন 'কি পঞ্চ প্রকারের আশা, পঞ্চদশ ভাগে পঞ্চাশত বিভাগে ঘটনা-লিপ্ত শামুষের হৃদয়! কাশে সচঞ্চল চঞ্চলাব স্থায় ছুটতে থাকে, থেলিতে থাকে। জীবনের সহিত তাশার সম্বন্ধ। আকাঙ্খাব নিবৃত্তি, আশার শাস্তি, জীবনেব ইতি, এতিনেই এক, আবার একেই তিন । সুতরাং জীবস্ত দেহে মনের আশ মিটিবার নহে । আশা মিটিল না । মোঙ্গাম্মদ হানিফাব মনেব আশা পূর্ণ হইল না। যুগল অশ্ব বেগে ছুটয়াছে। এজিদের অশ্ব অগ্ৰেই আছে। হানিফার মনের আশা, এজিদকে ন মারিয়া জীয়ন্ত ধরিবেন । পুৰ্ব্ব প্রতিজ্ঞানুসারে, তাহাকে কয়েকট কথা জিজ্ঞাস। বরিবেন, তাহা পারিতেছেন না। এজিদ অশ্ব চালনায় পবিপক্ক। প্রাণেব দায়ে, পথ, অপথ, বন, জঙ্গল মধ্য দিয়া অশ্ব চালাইতেছেন । পলাইতে পাবিশেই বক্ষ —পারিতেছেন না । হানিফকে দূরে ফেলিয়া আত্ম গোপন করিতে সক্ষম হইতেছেন না । সেই সমভাব । যহা কিছু প্রভেদ অগ্র আর পশ্চাং । এজিদ প্রাণপণে অশ্ব চালাইয়াছেন, কিন্তু হানিফাকে দূরে ফেলিয় তাহার চক্ষের অগোচর হওয়া দূরে থাকুক, হস্তস্থিত ভববারীর অগ্রভাগ হইতে স্বচ পরিমাণ স্থানও অগ্ৰে যাইতে পারিতেছেন না । স্থৰ্য্য তেজ কমিতেছে, মোহাম্মদ হানিফার প্লোষ বাড়িতেছে। যতই ক্লান্ত, ততই রোধের বৃদ্ধি। মোহাম্মদ হানিফ অ ৰ্থ বলগা দত্তে ধারণ করিয়া এজিদকে ধরিবার নিমিত্ত দুই হওঁ বিস্তার করিয় ছেন। স্থল ফুল প্রাণপণে দোঁড়িতেছে, কিন্তু ধরিতে পারিতেছেন না। এই ধরিলেন, এই বারেই ধরিবেন, আর একটু অগ্রসর হইলেই ধরিতে পরিবেন, অশ্ব হইতে চু্যত করিবেন, কিন্তু কিছুতেই পারিতেছেন না ।