পাতা:বিষাদ-সিন্ধু এজিদ্‌-বধ পর্ব.pdf/৪১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চতুর্থ প্রবাহ ! ٩ ډې তেছ না । উচ্চ মঞ্চে কাহার নিশান উড়িতেছে, দেখিতেছ না । রে নরাধম! তুই কি সেই এজিদ । " আরবের মুর্বপ্রধান বীর হাসেনকে কৌশল করিয়া মারিয়াছিস্ ওরে! তুষ্ট কি সেই পামব । যে শীমার দ্বাবা হোসেনেব মস্তকু কাটাইয়া লক্ষ টাকা পুরস্কার দিয়াছিলি!” d T. মোহাম্মদ হানিফ ক্রোধে অধীর হইয়। অশ্বে কশাঘাত করিলেন। দ্রুতগতি অশ্ব পদখন্ধে পুৰ্বজনগণ চম্কিয়া উঠিলেন। दिल्ली-बाबना, आनन রোল, জয়ববেব কোলাহল ভেদ করিয়া,"অশ্ব পদগদ মহাশব্দে সকলের কর্ণে প্রবেশ করিল।, বিনি যে অবস্থায় ছিলেন, শশব্যস্ত ইয়। উদ্ধশ্বাসে সিংহদ্বার দিকে ছুটিলেন। এজিদ অশ্ব হইতে প্রথম উদ্যান, শেষে পুষ্প লওঁ। সজ্জিত নিকুঞ্জ দেখিয়া একটু আশ্বস্ত হইলেন । মসহাব কাঙ্ক প্রভৃতি মঙ্গবর্থীগণ, কেহ অশ্বে, কেহ পদব্রজে ক্রতপদে আসি হন্তে মাসিতেই হানিফ উচ্চৈঃস্ববে বলিতে লগিলেন ,— "ভ্রাতাগণ । ক্ষাস্ত হও । দোহাই তোমাদের ঈশ্বরেব-9ক্ষান্ত হও । এৰি তোমাদের বধ্য নহে ৷ বাধা দি ও না । এক্তিদেব গমনে বাধা দিও না । এজিদের প্রতি অন্ত্র নিক্ষেপ কবিও না ।” মোহাম্মদ হালিদের কথা শেষ ন৷ ছুইড্রেট, এজিদ এক লম্ফে অশ্ব হইতে নামিয়া উদ্যান অভিমুখে চলিলেন । হানিক্টার্ড এতজ্ঞস্থলের পৃষ্ঠ হইতে অবতৰণ করির অসিহস্তে এজিদের পশ্চাৎ পশ্চাং-দোড়িলেন। এদ্ভিদ যথাসাধ্য দোড়িয়া উদ্যানস্থ নিদিষ্ট নিকুঞ্জ মধ্যে যাইয়া ফিরিদপতাকাইতেই দেখিলেন, মোহাম্মদ হানিফও অতি ক্লিকটে। বিষ্কৃত এবং ভগ্নস্বরে বলিলেন, “হানিফ ! ক্ষাস্ত হও । আর কেন । তোমার আশা, তোমার প্রতিজ্ঞ, তোমার মুখেই রহিল, এক্সি চলিল। এই কথা বলিয়াই এজিদ গুপ্তপুরী প্রবেশদ্বার-কুপ মধ্যে প্রবেশ করলেন । মোহাম্মদ হানিফ রোবে অধীর হইয়া —‘‘যাবি কোথা । . ਸੀ। | இ এই কথা বলিয়া বীর বিক্রমে হুঙ্কার ছাডিয়া অস্ট্রিহস্তে ৰূপ মঞ্চে লক্ষ দিতেই বজ্রনাদে শব্দ হইল । “হানিফ । এজিদ তোমার বধ্য নছে ।” ১ • মুেহাম্মদ হানিফ €মত খাইয়া উদ্ধ দিকে চাহিতেই প্ৰভু হোসনের