পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১২২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীথিক ধরণীর রঙ্গভূমে রচি দিলে কী ভূমিকা, তারি মাঝে প্রাণীর হৃদয়রক্তে লিখা মহানাট্য জীবন মৃত্যুর, কঠিন নিষ্ঠুর দুৰ্গম পথের দুঃসাহস । যে পতাকা উৰ্দ্ধপানে তুলেছিলে নিরলস বলে কে জানিত তাহ নিরন্তর যুদ্ধের পতাকা, সৌম্যকান্তি দিয়ে ঢাকা । কে জানিত আজ আমি এ জন্মের জীবন মন্থিয়া যে বাণী উদ্ধার করি চলেছি গ্রন্থিয়া দিনে দিনে আমার আয়ুতে, সে যুগের বসন্ত বায়ুতে প্রথম নীরব মন্ত্র তারি ভামাহারা মৰ্ম্মরেতে দিয়েছ বিস্তারি’ তুমি বনস্পতি, মোর জ্যোতি-বন্দনায় জন্মপুৰ্ব্ব প্রথম প্রণতি ॥ ২৬ চৈত্র, ১৩৩৯ > のや