পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৮৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


গরবিণী কে গো তুমি গরবিণী, সাবধানে থাকে দূরে দূরে মর্ত্যধুলি পরে ঘৃণা বাজে তব নৃপুরে নূপুরে। তুমি যে অসাধারণ, তীব্র এক তুমি, আকাশ-কুল্লমসম অসৎসক্ত রয়েছ কুতুমি’। বাহিরের প্রসাধনে যত্নে তুমি শুচি ; অকলঙ্ক তোমার কৃত্রিম রুচি ; সৰ্ব্বদা সংশয়ে থাকো পাছে কোথা হতে হতভাগ্য কালে কীট পড়ে তব দীপের আলোতে স্ফটিকেতে ঢাকা । অসামান্য সমাদরে অঁাকা তোমার জীবন কৃপণের-কক্ষে-রাখা ছবির মতন বহুমূল্য যবনিকা অন্তরালে ;– ওগো অভাগিনী নারী, এই ছিল তোমার কপালে, আপন প্রহরী তুমি নিজে তুমি আপন বন্ধন। እ\ኃዓ