পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৮৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীথিকা আমি সাধারণ । এ ধরাতলের নির্বিবচার স্পর্শ সকলের দেহে মোর বহে যায়, লাগে মোর মনে সেই বলে বলী আমি, স্বত্ব মোর সকল ভুবনে। মুক্ত আমি ধুলিতলে মুক্ত আমি অনাদৃত মলিনের দলে । যত চিহ্ন লাগে দেহে, আশঙ্কিত প্রাণের শক্তিতে শুদ্ধ হয়ে যায় সে চকিতে । সম্মুখে আমার দেখো শালবন, সে যে সাধারণ । সবার একান্ত কাছে আপনা-বিস্মৃত হয়ে আছে । মধ্যাহ্ন বাতাসে শুষ্ক পাত ঘুরাইয়া ধূলির আবর্ত ছুটে আসে,— শাখা তার অনায়াসে দেয় নাড়া, পাতায় পাতায় তার কৌতুকের পড়ে সাড়া । >\»b