পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৮৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীথিক তবু সে অম্লান শুচি, নিৰ্ম্মল নিঃশ্বাসে চৈত্রের আকাশে বাতাস পবিত্র করে সুগন্ধ বীজনে । অসঙ্কোচ ছায়া তার প্রসারিত সৰ্ব্বসাধারণে । সহজে নিৰ্ম্মল সে যে দ্বিধাহীন জীবনের তেজে ॥ আমি সাধারণ। তরুর মতন আমি নদীর মতন । মাটির বুকের কাছে থাকি আলোরে ললাটে লই ডাকি? যে আলোক উচ্চনীচ ইতরের, বাহিরের ভিতরের । সমস্ত পৃথিবী তুমি অবজ্ঞায় করেছ অশুচি, গরবিণী, তাই সেই শক্তি গেছে ঘুচি' আপনার অন্তরে রহিতে অমলিন, হায় তুমি নিখিলের আশীৰ্ব্বাদহীন৷ 8 আগষ্ট, సెలిశి ১৬৯ གམ་ གཊི།