পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/১৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


আলোড়িত এই শূন্য যুগে যুগে উঠিয়াছে জুলি’, ভরিয়াছে জ্যোতির অঞ্জলি । বসে আছি নিনিমেষ চোখে, অতীতের সেই ধ্যানলোকে,— নিঃশব্দ তিমির তটে জীবনের বিস্তুত রাতির । (হ অতীত, শান্ত তুমি নিৰ্ব্বাণ-বাতির অন্ধকারে, সুখ-দুঃখ-নিস্কৃতির পারে । শিল্পা তুমি, আঁধারের ভূমিকায় নিভৃতে রচিছ স্বষ্টি নিরাসক্ত নিৰ্ম্মম কলায়, স্মরণে ও বিস্মরণে বিগলিত বর্ণ দিয়া লিখ। বণিতেছ আখ্যায়িক ; পুরাতন ছায়াপথে নুতন তারার মতো উত্তম্বলি উঠিছে কত, কত তার নিভইছ একেবারে যুগাস্তের অশান্ত ফুৎকারে ।