পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/২১০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীথিকা প্রলোভনরূপে আসে পরিহাসপটুতা, সাম্লানো নাহি যায় অকারণ কটুতা। বারে বারে এই মতো করি অত্যুক্তি, ক্ষমা ক’রে কোরো সেই অপরাধমুক্তি ॥ আর যা-ই বলি নাকে এ কথাটা বলিবই তোমাদের দ্বারে মোরা ভিক্ষার থলি বই । অন্ন ভরিয়া দাও সুধা তাহে লুকিয়ে, মূল্য তাহারি আমি কিছু যাই চুকিয়ে। অনেক গেয়েছি গান মুগ্ধ এ প্রাণ দিয়ে। তোমরা তো শুনেছ তা, অন্তত কান দিয়ে । পুরুষ পরুষ ভাষে করে সমালোচনা, সে অকালে তোমাদেরি বাণী হয় রোচনা | করুণায় ব’লে থাকে, “আহ, মন্দ বা কী !” খুঁটে বের করে না তো কোনো ছন্দ-ফাকি। এইটুকু যা মিলেছে তাই পায় ক’জন, এত লোক করেছে তো ভারতীর ভজনা ।