পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৩৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীথিক ছায়াবীথি হতে বাহিরে অসিলে ধীরে ভরা জোয়ারের উচ্ছল নদীতীরে, প্রাণ-কল্লোলে মুখর পল্লিবাটে । আমি কহিলাম, “তোমাতে আমাতে চলে, তরুণ রৌদ্র জলে করে ঝলোমলো, নৌকা রয়েছে ঘাটে ॥” তেলাতে চলে তারা ভাসি’ । জীবনের-স্মৃতি-সঞ্চয়-কর তরী, দিন রজনার সুখে দুখে গেছে ভরি’, আছে গানে-গাথা কত কান্না ও হাসি । পেলাব প্রাণের প্রথম পসরা নিয়ে সে তরণী পরে পা ফেলেছ তুমি প্রিয়ে, পাশাপাশি সেথা খেয়েছি ঢেউয়ের দোল । কখনো বা কথা কয়েছিলে কানে কানে, কখনো বা মুখে ছলোছলো দু-নয়ানে চেয়েছিলে ভামা-ভোলা ॥ >b~