পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৫৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীথিক বসনপ্রান্ত সীমন্তে রেখো তুলে, কপোল প্রান্তে সরু পাড় ঘন কালো । একগুছি চুল বায়ু উচ্ছাসে কাপ ললাটের ধারে থাকে যেন অশাসনে, ডাহিন আলকে একটি দোলন-চাপ ছলিয় উঠুক গ্ৰাবা-ভঙ্গীর সনে । বৈকালে গাথা যুথী-মুকুলের মাল৷ কণ্ঠের তাপে ফুটিয়া উঠিবে সাপে ; দরে থাকিতেই গোপনগন্ধ-ঢাল। সুখসপবাদ মেলিবে হৃদয়মালো । এই স্তযোগেতে একটুকু দিষ্ট গোট— অামারি দে ওয়া সে ছোট চুনার তেল —রক্তে জমানো যেন অশ্রচর ফোটা— কতদিন সেটা পরিতে করেছ ভুল । আরেকট। কথা ব’লে রাখি, এইখানে কাব্যে সে কথা হবে ন মানানসই, হুর দিয়ে সেট গাহিব না কোনো গানে, তুচ্ছ শোনাবে তবু সে তুচ্ছ কষ্ট ।