পাতা:বীথিকা-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.pdf/৬৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বীথিক প্রকাশিত। নট-নটা রঙ্গসাজে ছিল যতক্ষণ সত্য ব’লে জেনেছিল প্রত্যহের হাসি ও ক্ৰন্দন, উত্থান পতন বেদনার । অবশেষে যবনিক। নেমে গেল, নিবে গেল একে একে প্রদীপের শিখা, স্নান হোলো অঙ্গরাগ, বিচিত্র চাঞ্চল্য গেল থেমে, যে নিস্তব্ধ অন্ধকারে রঙ্গমঞ্চ হতে গেল নেমে স্তুতি নিন্দ সেথায় সমান, ভেদহীন মন্দ ভালো, দুঃখহুখ-ভঙ্গী তার্থহীন, তুল্য অন্ধকার তালে, লুপ্ত লজ্জ। ভয়ের ব্যঞ্জনা । যুদ্ধে উদ্ধারিয়া সাত அ পরক্ষণে প্রিয়হস্ত রচিতে বসিল তার চিতা ; সে পালার অবসানে নিঃশেষে হয়েছে নিরর্থক সে দুঃসহ দুঃখদাহ, শুধু তারে কবির নাটক কাব্য-ডোরে বাধিয়াছে, শুধু তারে ঘোমিতেছে গান, শিল্পের কলায় শুধু রচে তাহা আনন্দের দান । (ミ) জনশূন্য ভাঙাঘাটে তাজি বৃদ্ধ বটচ্ছায়াতলে গোধূলির শেষ আলো আমাঢ়ে ধূসর নদীজলে