পাতা:বুয়র ইতিহাস - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৪৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

৪০

বুয়রদিগের উৎপত্তি।

স্বাধীনভাবে ব্যবসা বাণিজ্য করিতে আদেশ প্রদান করিলেন; তথ্যতীত, কোম্পানীর যে সকল নোট বা কাগজ-মুদ্রা সেই প্রদেশে প্রচলিত ছিল, তাহার পরিবর্ত্তে ধাতু-মুদ্রার প্রচলন আরম্ভ করিলেন।

 এই সকল কারণে, প্রজাগণ ক্রমেই ইংরাজদিগের বশীভূত হইতে আরম্ভ করিল। তদ্ব্যতীত, যে সকল বুয়রগণ সাধারণতন্ত্র স্থাপন করিয়াছিলেন, তাঁহাদিগের মধ্যে ষ্টেলেনবস্‌ (Stellen bosch) ও সোয়েলেন্‌ডেন (Swellendan) প্রদেশীয় বুয়রগণ, তাঁহাদিগের সাধারণতন্ত্র উঠাইয়া দিয়া, ইংরাজদিগের বশ্যতাস্বীকার করিলেন। অবশিষ্ট থাকিলেন কেবলমাত্র গ্রাফ্‌-রীনেট্‌ (Graaff-Reinet) প্রদেশের অধিবাসিগণ। তাঁহারা জান পিটার ওয়ারার (Jan Pieter Woyer) নামক এক ব্যক্তির পরামর্শ শুনিয়া, প্রথমতঃ ইংরাজের বশ্যতাস্বীকার অস্বীকার করিয়াছিলেন; কিন্তু ইংরাজ গভর্ণমেন্ট যখন তাহাদিগের গুলি বারুদ ক্রয় করিবার উপায় একেবারে বন্ধ করিয়া দিলেন, তখন তাঁহাদিগকে বাধ্য হইয়া, ১৭৯৬ খৃষ্টাব্দে নামে মাত্র ইংরাজদিগের বশ্যতাস্বীকার করিতে হইল; কিন্তু কোন রূপে কাহার নিকট হইতে উপযুক্তরূপ সাহায্য পাইলেই, তাঁহাদিগের পুনরায় স্বাধীন হইবার অভিসন্ধি রহিল।

 ওয়ায়ার (Woyer) কোনগতিকে আল্‌গোয়া উপসাগর হইতে একখানি দিনেমার জাহাজে উঠিয়া জাভায় (Java) পলায়ন করিলেন।

 সেইস্থান হইতে সংগ্রহ করিয়া, তিনি একবার একখানি জাহাজ গুলি বারুদে পূর্ণ করিয়া, গ্রাফ্‌রীনেট্‌ (Graaff