পাতা:বুয়র ইতিহাস - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/৫১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

অষ্টম পরিচ্ছেদ।

৪৭

প্রবেশ করিলেন। ঐ প্রদেশের মৎস্য ও কাউই নদীর (Kowie) মধ্যস্থিত আদিম অধিবাসিগণ দলেদলে গিয়া পিতৃব্যের দল পুষ্ট করিতে লাগিল। সেই প্রদেশীয় শ্বেতাঙ্গগণ, ঐ সকল অসভ্য জাতির অত্যাচারে ও ভয়ে, আপন আপন বিষয় সম্পত্তি সেই স্থানে পরিত্যাগ পূর্ব্বক, পলায়ন করিতে লাগিলেন। সুতরাং অতি অল্প দিবসের মধ্যে ঐ অসভ্যজাতি সেই স্থানের একাধিপতি হইয়া পড়িল।

 ইংরাজ-সেনাপতির, ঐ সকল জাতির বিরুদ্ধে গোরা সৈন্য প্রেরণ করিবার ইচ্ছা ছিল না; কিন্তু কার্য্যে তাঁহাকে তাহা করিতে হইল। তিনি সেই সময় কতকগুলি ইংরাজসৈন্যের সহিত, সেই স্থান দিয়া কেপ নগর অভিমুখে গমন করিতেছিলেন। পথিমধ্যে সনডে নদীর (Sunday River) উপকূলে, তাহারা তাঁহাকে আক্রমণ করে; কিন্তু সেনাপতিকে পরাজয় করিতে পারে না, বরং তাহারাই বিতাড়িত হয়। সেনাপতি ২০ জন সৈনিক প্রহরীকে পশ্চাতে রাখিয়া আসিয়াছিলেন। তাহাদিগকে সঙ্গে করিয়া লইয়া যাইবার মানসে, তিনি সেইস্থানেই শিবির সন্নিবেশিত করিলেন; কিন্তু সেই ২০ জন সৈনিক প্রহরীকে আর তাহাদিগকে সঙ্গে করিয়া লইয়া যাইতে হইল না। পথিমধ্যে, তাঁহারা কোষগণের দ্বারা আক্রান্ত হইয়া, ১৬ জন শমন সদনে গমন করেন। অবশিষ্ট ৪ জন মাত্র শিবিরে আসিয়া উপস্থিত হন। ইহার পরেই কোষাগণ দলপুষ্টির সহিত, সেনাপতির শিরিয়ে বলপূর্ব্বক প্রবেশ করিবার চেষ্টা করিয়াছিল; কিন্তু ইহাতে অনেক কোষা আহত হওয়া, তাহারা সেইস্থান হইতে প্রস্থান করে।