প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বৈকালী-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৯৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


দুঃখের বিষয়, এই পরিবর্ধিত উত্তর-বৈকালী’ বা ‘নব-বৈকালীরই অনেকগুলি পাত আশানুরূপ ছাপা না হওয়ায়৩ বিনষ্টের পর্যায়ে পড়ে এবং বহু বংসর পরে বৈকালীর আংশিক সংকলন ও স্বল্পমাত্র প্রচার হয় ৭ পৌষ ১৩৫৮ তারিখে (২৩ ডিসেম্বর ১৯৫১), ক্ষীণতর আকারে পুনঃপ্রচার ১৩৫৯ ফাল্গুনে। যে বা যে-সকল গ্রন্থে পত্রসংখ্যা সর্বাধিক, তদনুযায়ী এই পূর্বপ্রচারিত কিন্তু খণ্ডিত বৈকালীর এক স্থচীপত্র পরে দেওয়৷ গেল ; ইহাতে রবীন্দ্রনাথের স্বহস্তে লেখা পৃষ্ঠাঙ্কে অনুমান করা যাইবে কতগুলি পাতা বা কতগুলি রচনা পূর্বাপর নষ্ট হইয়াছে এবং সবগুলি সম্ভবতঃ কিরূপ পারস্পর্যে সাজানো হয়°— এই নব বৈকালীতে ‘প্রবাসী’-পাণ্ডুলিপির প্রায় সমুদয় রচনাই গ্রহণ করা হইয়াছিল এরূপ অকুমানের কারণ পরবর্তী আলোচনায় স্পষ্ট হইবে। প্রবাসী মাসিক পত্রে ১৩৩৩ সনের আষাঢ়-কাতিক ৫ মাসে 'বৈকালী’ পর্যায়ে ৩২টি রচনার প্রচার, কিন্তু ‘প্রবাসী’-পাণ্ডুলিপিতে রচনা ৪১টি। প্রবাসীতে কয়েকটি রচনা বৈকালী’ পর্যায়ের বাহিরেও ছাপা হয়, কয়েকটি রচনা কষ্টিপাথরে সংকলন করায় দ্বিতীয়বার ছাপা হয়, তাহ পরবর্তী দ্বিতীয় সূচীপত্রে যথাস্থানে যথাবিধি উল্লিখিত । এ সম্পর্কে ১১ জানুয়ারি ১৯২৭ তারিখে [ ২৭ পৌষ ১৩৩৩ ] বলিন হইতে একখানি চিঠিতে প্রশান্তচন্দ্র মহলানবিশ রবীন্দ্রনাথকে লেখেন : ‘কালিতে-লেখা সবগুলোই ভালো হয়েছে। পেনসিলে-লেখা অনেকগুলি নষ্ট হ’লো। প্রধান কারণ অনেক জায়গায় লেখা ভালো ফোটে নি, যথেষ্ট চাপ দিয়ে না লেখায় দাগ বসে নি, তার উপর অতিরিক্ত fixing solution দেওয়ায় দাগ মুছে গেছে। ••• ১টা machine আর পুরো সরঞ্জাম ( কাগজমৃদ্ধ ) অর্ডার দিয়েছি, আশা ক’রছি ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যেই শাস্তিনিকেতনে পৌছবে••• ? বৈকালী গ্রন্থ সম্পূর্ণ না হওয়ার ও কবির আয়ুষ্কালে প্রচার না হওয়ার কারণ স্পষ্টই বুঝা যাইতেছে। উল্লিখিত হাতের লেখা বা লেখাঙ্কন যথাযথ ছাপাইবার যন্ত্র / উপকরণ শাস্তিনিকেতনে আসে কি না, ব্যবহারের চেষ্টা হইয়াছিল কি না জানা যায় নাই। * নিবিশেষে সকল প্রতির পত্রসংখ্যা সমান হয় নাই। কতকগুলি পাতা একেবারে নষ্ট হয় ; সংরক্ষিত অন্যান্য পাতাও সমান সংখ্যায় পাওয়া যায় নাই । ক্রমিক সংখ্যা এই তালিকারই কিন্তু উদ্ধৃতিচিহ্ন দিয়া যেগুলি দেখানে হইল, ( সেরূপ চিহ্ন না দিয়া ) নিদিষ্ট গানের পরে পরে কবি স্বয়ং লেখেন। কবি এই বৈকালীর কোনো কোনো পাতায় কেবল এক পিঠে অঙ্কপাত করেন বাংলায়, কখনো বা ইংরেজিতে । b*8