প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বৌ-ঠাকুরাণীর হাট-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১০৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বৌ-ঠাকুরাণীর হাট o\e অষ্টাদশ পরিচ্ছেদ সুরমা কি আর নাই ? বিভার কিছুতেই তাহ। মনে হয় না কেন ? ষেন সুরমার দেখা পাইবে, যেন সুরমা ঐ দিকে কোথায় আছে ! বিভ ঘরে ধরে ঘুরিয়া বেড়ায়, তাহার প্রাণ যেন স্বরমাকে খুজিয়া বেড়াইতেছে । চুল বাধিবার সময় সে চুপ করিয়া বসিয়া থাকে, যেন এখনি সুরমা আসিবে, তাহার চুল বধিয়া দিবে, তাহারি জন্য অপেক্ষ কবিতেছে। না রে না, সন্ধ্যা হইয৷ আসিল, রাত্রি হইয়া আসে, স্বরম বুঝি আর আসিল না, চুল বাধ। আর হইল না। আজ বিভার মুখ এত মলিন হইয়া গিয়াছে, আজ বিভা এত কাদিতেছে, তবু কেন হুরমা, আসিল না, সুরমা ত কথনে এমন করে না ! বিভার মুখ একটু মলিন হইলেই অমনি সুরমা তাহার কাছে আসে, তাহার গলা ধরে, প্রাণ" জুড়াইয়া তাহার মুখের পানে চাহিয়া থাকে, আর আজ—ওরে, আজ বুক ফাটিয়া গেলেও সে আসিবে না। 1_. 4 উদয়াদিত্যের অৰ্দ্ধেক বল অৰ্দ্ধেক প্রাণ চলিয়া গিয়াছে। প্রত্যেক কাজে যে র্তাহার আশা ছিল, উৎসাহ ছিল, যাহার মন্ত্রণ র্তাহার একমাত্র সহায় ছিল, যাহার হাসি তাহার একমাত্র পুরস্কার ছিল—সেই চলিয়া গেল ! তিনি র্তাহার শয়ন গৃহে যাইতেন, যেন কী ভাবিতেন, একবার চারিদিক দেখিতেন, দেখিতেন—কেহ নাই ! ধীরে ধীরে সেই বাতায়নে আসিয়া বসিতেন ; যেখানে স্বরম বসিত সেইখানটি শূন্ত রাখিয়াদিতেন, আকাশে সেই জ্যোংস্না, সম্মুখে সেই "কনিন, তেমনি করিয়া বাতাস বহিতেছে—মনে করিতেন, এমন সন্ধ্যায় স্বরম। কি না আসিয়া থাকিতে পরিবে ? o সহসা তাহার ੇ হইত, যেন স্বরমার মতে কার গলার স্বর শুনিতে গুইগাম, চমকিয়া উঠিতেন, যদিও অসম্ভব মনে হইত, তবু একবাৰু