প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বৌ-ঠাকুরাণীর হাট-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১১৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Y 28 বৌ-ঠাকুবাণীব হাট বিভ। কথা কহিতে, গল্প কবিতে চেষ্টা কবে, কিন্তু বিভা অধিক কথা কহিতে পাবে না , উদয়াদিত্যকে কী কবিয যে সুখে বাখিবে ভাবিষ। পায় না। সে কেবল ভাবে, অহি। যদি দাদামহাশয থাকিতেন । আজ কাল উদযাদিত্যেব মনে কেমন একটা ভষ উপস্থিত হইযাছে। তিনি প্রতাপাদি ৩কে অত্যন্ত ভধ কবেন । আব সে পূৰ্ব্বেকবি সাহস মাই। বিপদকে তৃণজ্ঞান কবিয অত্যাচাবেব বিরুদ্ধে প্রাণপণ কবিতে এখন আব পাবেন না। সকল কাজেই ইতস্তত কবেন, সকল বিষযেই সংশষ উপস্থিত হয । একদিন উদযাদিত শুনিলেন, ছাপবাব জমিদাবেব কাছাবীতে বাত্ৰিযোগে লাঠিযাল পাঠাইখ। কাছাবী লুট কবিবাব ও কাছাৰী বাটিতে আগুন লাগাইয়া ট্ৰিবাব আদেশ হইযাছে। উদযাদিত্য তৎক্ষণাৎ তাহাব অশ্ব প্রস্তুত কবিতে কহিয। অন্তঃপুবে গেলেন। শযনগৃহে প্রবেশ কবিয একবার চাবিদিক দেখিলেন। কী ভাবিতে লাগিলেন। ভাবিতে ভাবিতে মনস্থ হই বেশ পরিবর্তী কবিতে লাগিলেন। বাহিৰে সলেন। ভূত্য আসিয়া কহিল, “যুবরাজ অশ্ব প্রস্তত হইয়াছে। কোথায় যাইতে হইবে ?” যুবৰাজ কিছুক্ষণ অন্যমনস্ক হইয়া ভূত্যেব মুখেৰ দিকে চাহিয়া বহিলেন ও অবশেষে কহিলেন, “কোথাও না । তুমি অশ্ব লইয়া যাও।” এক দিন এক ক্ৰন্দনেব শব্দ শুনিতে পাইযা উদয়াদিত্য বাহিব হইয। আসিলেন, দেখিলেন বাজকৰ্ম্মচাবী এক প্রজাকে গাছে বাধিয়ামাবিতেছে। প্রজা কাদিয়। যুববাজেব মুখের দিকে চাহিয। কহিল, “দোহাই যুবরাজ ।” যুবৰাঞ্জতাহাব যন্ত্রণ। দেখিতে পাবিলেন না, তাড়াতাডি চুটিয়া গৃহেব মধ্যে প্রবেশ কবিলেন । আগে হইলে ফলাফল বিচাব না কবিয় কৰ্ম্মচারীকে বাধা দিতেন, বক্ষ কবিতে চেষ্টা করিতেন । "ভাগবত ও সীতাব दक ट्झेब्र ੀ। তাহাদিগবে |