প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বৌ-ঠাকুরাণীর হাট-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১২৪

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


S२8 বৌ-ঠাকুরাণীর হাট ভাগবত কহিল—“কই তোমার ভাবে ত তাহা বোধ হইল ন! !” সীতারামেব বদান্তত ভাগবতেব বড সহ হয় নাই, মনে মনে কিছু চটিয়াছিল ! সীতবিমি কহিল, "না, ভাই, কথাব কথা বলিতেছি । আজি না যায় ত দশদিন পৰে ত যাইবে ।” ভাগবত কহিল—“ত, বাজ। যদি অন্য{য বিচাব কবেন ত আমব| কী করিতে পারি !” সীতারাম কহিল, "আঙ্গ। যুববাজ যখন বাজ হইবে, তখন যশোবে রামরাজত্ব হইবে ততদিন যেন আমব বঁচিয। থাকি।” ভাগবত চটিয়া গিয কহিল, “ওসব কথায আমাদেব কাজ কী ভাই ? তুমি বডমান্তষ লোক, তুমি নিজের ঘরে বসিয। রাজ। উজীব মারে, সে শোভা পায—অামি গরীব মানুষ, আমাব অতটা ভরস। झग्न न !” সীতারাম কহিল,“বাগ কবে। কেন দাদা ? কথাটা মন দিয়া শোনোই না কেন ? বলিযা চুপি চুপি কী বলিতে লাগিল । ভাগবত মহাকুদ্ধ হইয| বলিল, “দেখে সীতারাম, আমি তোমাকে স্পষ্ট করি। বলিতেছি, আমার কাছে অমন কথা তুমি মুখে উচ্চাবণ কবিও না ।” ” সীতারাম সে দিন ত চলিয় গেল। ভাগবত ভারি মনযোগ দিয়| সমস্ত দিন কী একট। ভাবিতে লাগিল, তাহার পরদিন সকাল বেলায় সে নিজে সীতারামের কাছে গেল । সীতারামকে কহিল, “কাল যে কথাট বলিয়াছিলে বড় পাক কথা বলিয়াছিলে ।” সীতারাম গৰ্ব্বিত হষ্টৗ উঠিয় কহিল, “কেমন দাদা বলি নাই ।” ভাগবত কহিল, “আজ সেই বিষয়ে তোমার সঙ্গে পরামর্শ করিতে আসিয়াছি ; y {