প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বৌ-ঠাকুরাণীর হাট-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/২৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বৌ-ঠকুরাগীব হাট তোবা, এমনকুজও কবে । কাফেবকে মাবিলে পুণা আছে বটে, ক্ষৰ সে পুণ্য এত উপাৰ্জন কবিয়ছি যে,পবকালেব বিষষে আব বডে ভাবনা নাই, কিন্তু ইহঁক লৈব মন্তই যে প্রকাব বেবন্দোবন্ত দেখিতেছি, তাহাতে এই কাঁফেবটাকে না মাবিষা যদি তাহাব একটা বিলিবন্দেজ কবিয লইতে পাবি ত|হাতে আপত্তি দেখিতেছি না।” বসন্তবাষ কিযৎক্ষণ চুপ কবিয়া অব থাকিতে পারিলেন না, ੰ কল্পন। উত্তেজিত হইষ উঠিল, পাঠানেৰ নিকটবর্তী হইয়া অতি চুপি চুপি কহিলেন “কাহাদেব কথা বলিতেছিলাম, সাহেব, জানো ? তাহাবা অামাব নতি ও নুতনী " বলিতে বলিতে অবধি হইয়া উঠিলেন, "ভারিলেন, “আমাব অঁকুচবেবী কখন ফিবিয আসিৰে।” আবাব**ার লইয়া গান আবম্ভ কবিলেন । একজন অশ্বাবোহী পুরুষ নিকটে আসিয। কহিল “আঃ বাচিলাষ । দাদামহাশয, পথেৰ বাবে এত বাত্র কাহাকে গান শুনাইতেছ ?” আনন্দে ও বিস্ময়ে অভিভূত বসন্তবায তৎক্ষণাৎ তাহাৰ শেঁতাব শিধিক উপবে বাথিয় উদযাদিতোব হাত ধবিযা নামাইলেন ও র্তাহাৰে বৃক্ষপে আলিঙ্গন কবিলেন, জিজ্ঞাসা কবিলেন “খবব কী দাদা... দিদি ভালো আছে ত A উদয়াদিত্য কহিলেন “সমস্তই মঙ্গল।" তখন বৃদ্ধ ৰাসিতে হাসিতে সেতাব তুলিযা লইলেন ও প। দিয়া তুলি, বাখিয়া মাথা নাডিয়া গান আবস্তু কবিযা দিলেন। “বধু্যা অসময়ে কেন হে প্রকাশ ? সকলি ষে স্বপ্ন বলে হতেছে বিশ্বাস । চঞ্জাবলীব কুঞ্জে ছিলে, সেখাষ ত আদব মিলে ? এরি মধ্যে মিটিল কি প্রণয়েবি মাশ!