প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বৌ-ঠাকুরাণীর হাট-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/২৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বৌ-ঠাকুরাণীর হাট ३१ পঞ্চম পরিচ্ছেদ

  • +ीनङ्] বহিলেন “দেখো দেখি মন্ত্রী, সে পাঠান, দুটা এখনও

ਬਾਸ਼ਿਸ਼ਕ : “ মন্ত্রী ধীরে ধীবে কহিলেন, “সেট ত আৰ আমাব দোষ নয় মহাবাজ ।” '• প্রতাপাদিত্য বিবক্ত श्य। কহিলেন, দোষেব কথা হইতেছে না। দেবী যে হইতেছে তাহাব ত একট। কাবণ আছে ? তুমি কী অকুমান কবো, তাহাই জিজ্ঞাস কবিতেছি ।” ੀ “শিমুলতলী এখান হইতে বিস্তব দব । যাইতে, কাজ সমাধা কবিতে ও ফিবিষা অসিতে বিলম্ব লইবাব কথা ।” o 轉 প্রতাপাদিত্য মন্ত্রীব কথাষ অসন্তুষ্ট হইলেন। তিনি চান, তি যাহ। অনুমান কবিতেছেন, মন্ত্রীও তাঁহাই অল্পমান কবেন । কিন্তু মন্ত্রী সে দিক্ দিয়া গেলেন না। প্রতাপাদিত্য কহিলেন, “উদযাদিত্য কাল বাজে বাহিব হইযা গেছে ?” মন্ত্রী।, “আজ্ঞা হা, সে ত পূর্বেই জানাইযাছি।”

  1. . “পুবেই জানাইযাছি । কী উপযুক্ত সময়েই ছি। যে সময়ে হউক জানালেই বুঝি তোমাব কাজ শেষ

झैण ? উদয়াদিত্য ত পূর্বে এমনতব ছিল না। শ্রীপুবেব জমিদাবের মেয়ে"বুধ করি ত হাকে "কুপরামর্শ দিয়া থাকিবে। 喃 cबांथ झय् ?” মন্ত্রী । “কেমন কবিয়া বলিব মহাবাজ ?” দিত্য বলিযা উঠিলেন “তোমাব কাছে কি আমি বেদবাক্য শুনিতে চাহিতেছি ? তুমি কী আন্দাজ কবে, তাই বলে ন৷ ” মন্ত্রী। "আপনি মহিষীব কাছে বধুমাতাঠাকুবাণীর কথা সম্বই