প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বৌ-ঠাকুরাণীর হাট-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৩২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ধ্ৰুকড় খবিয়া বাৰ্খ।" বলিযা ঘব হইতে দ্রুতপদে রাহির হইয়া গেলেন। ' বাজা মন্ত্রীকে ডাকাইযা কঙ্গিলেন,—“বাজকাৰ্য্যে তোমার অত্যন্ত অমনোযোগ লক্ষিত হইতেছে।” " মন্ত্রী আন্তে আস্তে কছিলেন,–“মহাবাজ, এ বিষয়ে আমব কোনো দোষ নাই ।” अड*ीडिा তাবস্ববে বলিখা উঠিলেন “আমি কি কোনো বিষষেব উল্লেখ কবিতেছি । আমি বলিতেছি, বীজকায্যে তোমাব অত্যন্ত অমনোযোগ্ন লক্ষিত হইতেছে। সে দিন তোমাব কাছে এক চিঠি বাখিঙে দিলাম, তুমি হাবাইয। ফেলিলে ।” দেড় মাল পূৰ্ব্বে এইরূপ একটা ঘটনাছিল বটে, কিন্তু তখন মহাৰাজ মন্ত্ৰীক একটি কথাও বলেন নাই। ! *আব একদিন উমেশ বযেব নিকট তোমাকে যাইতে আদেশ ক্ষরিলাম, তুমি লোক পাঠাইযা কাজ সাবিলে। চুপ কবে । দোষ কাটাইবার জন্য মিছামিছি চেষ্টা কবিও না। যাহা হউক, লুনা, জানাইয় বাথিলাম, বাজকাৰ্ষ্যে তুমি কিছুমাত্ৰ মনোযোগ দি খাজা প্ৰহৰীদেব ডাকাইলেন। পূৰ্ব্বে বাত্রের গ্ৰহৰীদেৰ ৰেঙ্গন কাটিযাছিলেন, এখন তাহদেব প্রতি কাবাবাসের আদেশ পাইল । অন্তপুরে গিয়া মহিষীকে ডাকাইযা কছিলেন,—“মহিলি বাজপৰিবারের মধ্যে অত্যন্ত বিশৃঙ্খলা দেখিতেছি । উদযাদিত্য পূৰ্ব্বে তো এমনছিল না। এখন সে যখন তখন বাহিব হইযা যায। প্রজাদেব কাজে” যোগ দেয়। মামাব বিরুদ্ধাচৰণ করে। এ সকলের ঘর্ষ কী "r ; श्ौि ੋਂ কহিলেন, “মহাঙ্গাজ, তাহার কোন দোষ 响战 *गर्भध भनळ(६ मूण मे बरछ cरी । बाश आभाव cड भाग ***,