প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বৌ-ঠাকুরাণীর হাট-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৫৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বৌ-ঠাকুবাণীব হাট @ዥ কপিতে কহিল, “হতভাগা, ভেবে কি অব মবিবাব জাযগ। ह्नेिल्ल न! ?” বমাই কহিল, “মহাবাজ আমাকে অপদেশ কবিঘাছেন।” বামমোহন বলিযা উঠিল, “কী বলিলি, নিমকহাবাম ? ফেব আমন কথা বলিবি ত, এই সানেব পাথবে তোব মুখ ঘষিয। দিব।” বলিয। তাহাব গল টিপিয nবিল । বমই অক্তনাদ কবিয উঠিল। তখন বামমোহন খৰ্ব্বকায বমাইকে চাদব খি বধিয বস্তাব মতন কবিধ ঝুলাইয়। অন্তঃপুব হইতে বাহির হইয। গেল । দেখিতে দেখিতে কথাট। অনেকট বাষ্ট্র হইযা গিযাছে । বাত্রি তখন । দুষ্ট প্ৰহব অতীত হইয। গিযছে । বাজাব শু্যালক আসিয। সেই বাত্রে প্রতাপাদিত্যকে সংবাদ দিলেন যে, জামাত বমাই ভাডকে বর্মণীবেশে অন্তঃপুবে লইষ গেছেন । সেখানে সে পুব-বমণদেব সহিত, এমন কি, মহিষীব সহিত বিদ্রুপ কবিযাছে। তথন ਬਣਿ মৃত্ত অতিশয ভযন্ধব হুইযা উঠিল। বেষে তাহাব সৰ্ব্বাঙ্গ আলোডিত হইয। উঠিল। স্ফীতজটা সিংহেব ন্যায শয্য হইতে উঠিযা বসিলেন। কহিলেন, “লছমন সন্দাবকে ডাকে।” লখমন সন্দাবকে কহিলেন—“আজ বাত্রে আমি বামচন্দ্র বযেব ছিন্ন মুগু দেখিতে চাই ।” সে তৎক্ষণাৎ সেলাম করিয কহিল, “যে হুকুম মহাবাজ ।” তৎক্ষণাৎ তাহ।ব শুলক তাছুবি পদতলে পডিল, কহিল— “মহাবাজ, মার্জন করুন, বিভাব কথা একবাব মনে ককন। অমন কাজ কবিবেনু ন " প্রতাপাদিত্য পুনবাৰ দৃঢ়স্বৰে কহিলেন, “আজ রাত্ৰেৰ মধ্যে দম বামচন্দ্ৰ বাবে মুণ্ড চাই ।” তাহাব খালক তীব পা জড়ছিী ধরিষা কহিল, “মহাবাজ, আজ তাহাব অন্তঃপুবে শষন করিয়াছেন, মার্জন করুন, মহাবাজ মার্জন করুন।” তখন প্রতাপাদিত্য }