প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বৌ-ঠাকুরাণীর হাট-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৬৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


বৌ-ঠাকুরাণীৰ হাট &ማ মুছ্যিা ফেলিল। স্বামীর হাত ধরিষ। তাহাব শযন-কক্ষে লইযা গেল । দৃঢ় পদে খাবেব নিকট দাড়াইয। অকম্পিত স্ববে কহিল—“দেখিব, এ ঘব হইতে তোমাকে কে বাহিৰ কবিয লইতে পাবে । তুমি যেখানে যাইবে, আমি তোমাব আগে আগে যাইব, দেখিব আমাকে কে বাধা দেয় ।” উদয়াদিত্য স্বাবেব নিকট দাডাইয কহিলেন, “আমাকে বধ না করিয়া কেহ ঘরের মধ্যে প্রবেশ কবিতে পাবিবে না।” স্নবম কিছু না বলিয়া স্বামীব পাশ্বে গিয় দাডাইল । বুদ্ধ বসন্তবাষ সকলেব আগে আসিয়। দ।ডাইলেন। মামা ধীবে ধীবে চলিয। গেলেন। কিন্তু রামচন্দ্ৰ বাযের এ বন্দোবস্ত কিছুতেই ভাল লাগিল না। তিনি ভাবিতেছেন, "প্রতাপাদিত্য দে বকম লোক দেখিতেছি তিনি কী না করিত্বে পারেন । বিভা ও উদযাদিত্য মাঝে পডিয। কিছু কবিতে পাবিবেন, এমন ভরসা হয় না । এ বাডি হইতে কোনো মতে বাহিব হইতে পাবিলেই বঁচি ।” কিছুক্ষণ বাদে স্থবমা উদযাদিত্যকে মুঢ়স্ববে কহিল, “আমাদেব এখানে দাড়াইযা থাকিলে যে কোনে ফল হুইবে তাহা ত বোধ হয ন। , ৰবং উণ্টা । পিত। যতই বাধা পাইবেন, ততই তাহাব সংকল্প আবে দৃঢ় হইবে। আজ বাত্রেই কোনো মতে প্রাসাদ হইতে পালাইবাব উপায় কহিযা দাও।” উদয়াদিত্য চিন্তিতভাবে কিমৎক্ষণ স্বৰমাব মুখেব দিকে চাহিয়া কহিলেন, “তবে আমি যাই, বল-প্রযোগ কবিয দেখিগে ।” স্তবম দৃঢ় ভাবে সন্মতি-স্বচক নাড নাডিয। কহিল—“যাও।” উদয়াদিত্য তাহাব উত্তবীয় বসন ফেলিয। দিলেন—চলিলেন। স্থরমা সঙ্গে সঙ্গে কিছু দূৰ গেল। নিভৃত স্থানে গিয়। সে উদয়াদিত্যের বক্ষ আল্লিঙ্গন করিয়া ধবিল। উদয়াদিত্য শিব নত কবিষ, তাহাকে একটি দীর্ঘ চুম্বন করিলেন, ও মুহূৰ্ত্তেব মধ্যে চলিয় গেলেন। তখন সুরমা তাহার শয়নকক্ষে আদিষ উপঞ্চি কইল । তাহাব দুই চোখ বহিষা অঞ্জ