প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:বৌ-ঠাকুরাণীর হাট-রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/৯৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


Str বৌ-ঠাকুরাণীর হাট মিলন নাই, সুখ দুঃখের বিনিময় নাই, বুক ੋ। গেলেও এক মুহূর্ক্সেব .জন্যও এক বিন্দু প্রেম নাই স্নেহ নাই, কিছু নাই, কী ভয়ামক ভবিষ্কং | সুরমার বুক ফাটিতে লাগিল, মাথা ঘুবিতে লাগিল, চোখের জল শুকাইয। গেল ! উয়িদিত্য আসিবামাত্র সুবম তাহার পা দুটি জডাইয়া বুকে চাপিয়া বুক ফাটিব৷ কঁদিয উঠিল । স্বরম। এমন কবিয কখন কাদে নাই ! জাহাব বলিষ্ঠ হৃদয আজ শতধ হইয। গিয়াছে। উদয়াদিত্য স্থরমাব মাথ। কোলে তুলিয। লইয়া জিজ্ঞাসা কবিলেন, “কী হইয়াছে স্বরম ?” সুবমা উদযাদিত্যেব মুখেব দিকে চাহিয়। আব কি কথ। কহিতে পাবে ? মুখের দিকে চায অব কাদিষ ওঠে। বলিল, “ঐ মু আমি দেখিতে পাইব না? সন্ধ্য হইবে, তুমি বাতাৰুেআসিয বীৰে, আমি পাশে মাই ? ঘবে দীপ জালাইয় দিবে, তুমি wীবের নিকট আসিয়া দাড়াইবে, আব আমি হাসিতে হাসিতে ভেক্টর হাত ধরিয়া মানিব না ? তুমি যখন এখানে, আমি তখন কোথায় ?” স্থরা যে বলিল “কোথায় তাহাষ্ঠে কতখানি নিরাশ, তারাতে কত দূর দুবাস্তরেব বিচ্ছেদেব ভাব । যখন কেবল মাত্র চোখে ८कॉर्थहे प्रिजन श्रेष्ठ नदि' उभन भाषा कउ मूत्र ! बथन फांशs হইতে পাঙ্গে না, তপন আৰো কত দূব ! যখন বার্তা হয়, তখন আরো কতদূর । যখন প্রাণান্তিক ইচ্ছু হইলেও এক ম্ভেব জন্তও দেখা হইবে না, তখন—তখন ঐ পা দুখালি ধবিয়া এগলি করিষ M. চাপিয়া এই ঠুৰ্বেই মবিয়া যাওয়াতেই স্বৰ্গ । সপ্তদশ পরিচ্ছেদ পাখ্যানের আরম্ভভাগে ক্ষত্মিণীর উল্লেখ করা হইয়াছে, फशिएक दिवङ इन♚हे। '#हे अपैगई.aारे क*ि**** জন্ম