পাতা:ভগ্নহৃদয় - রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর.djvu/১৪

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।
ভগ্নহৃদয় ।

মুরলা।—ক্ষমা কর মোরে সখি, শুধায়োনা আর! 
মরমে লুকানো থাক্ মরমের ভার!
যে গোপন কথা সখি, সতত লুকারে রাখি,
ইষ্ট-দেব-মন্ত্ৰ সম পূজি অনিবার,
তাহা মানুষের কানে ঢালিতে যে লাগে প্রাণে,
লুকানো থাক্ তা সখি হৃদয়ে আমার!
ভালবাসি, শুধায়োনা কারে ভালবাসি!
সে নাম কেমনে সখি কহিব প্রকাশি!
আমি তুচ্ছ হোতে তুচ্ছ, সে নাম যে অতি উচ্চ,
সে নাম যে নহে যোগ্য এই রসনার!
ক্ষুদ্র ওই কুসুমটি পৃথিবী-কাননে,
আকাশের তারকারে পূজে মনে মনে—
দিন দিন পূজা করি শুকায়ে পড়ে সে ঝরি,
আজন্ম নীরব প্রেমে যায় প্রাণ তার—
তেমনি পূজিয়া তারে, এ প্রাণ যাইবে হা-রে
তবুও লুকানো রবে একথা আমার!

চপলা।—কে জানে সজনি, বুঝিতে না পারি 

 এ তোর কেমন কথা!
আজিও ত সখি না পেনু ভাবিয়া
 এ কি প্রণয়ের প্রথা!
প্রণয়ীর নাম রসনার, সখি,
 সাধের খেলেনা মত,
উলটি পালটি সে নাম লইয়া
 রসনা খেলায় কত!