প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:ভারতীয় সাধক - শরৎকুমার রায়.pdf/২৬

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


ভারতীয় সাধক শত্রুর করে আত্মসমৰ্পণ করা সঙ্গত ? সিদ্ধার্থের মনে প্রশ্ন উঠিল-সে কোন সাধনা, যাঁহাতে সিদ্ধিলাভ করিলে মানব এই অনন্ত দুঃখ লঙ্ঘন করিয়া সুখকৰ কল্যাণকবি শাস্তিপ্রদ নিৰ্বাণ লাভ করিতে পারে ? তিনি এই অস্তষ্ঠান ভাবনায় আবিষ্ট হইলেন, কিন্তু কোনো "সিদ্ধান্তে উপনীত হইতে পাবিলেন না । মনের যখন এই অনিশ্চিত অবস্থা, তখন এক গৈরিক পরিচ্ছদধারা সৌম্যমণি, সাধু ঠাণ্ডার দৃষ্টি আকর্ষণ করিল। সাধুব নিব্বিকার ভাবে তিনি মুগ্ধ ৩ ইলেন ; ভাবিলেন, এমনি অনাসক্ত ও গৃহ ত্যাগী হইয়া সমগ্ৰ মানবজাতির জন্য তিনি মুক্তিব্য একটি পথ আবিষ্কার করিবেন। তঁাচার মনে হইল, প্রোগবিলাসেব মধ্যে থাকিয়া এই মহাসাধনায় সিদ্ধি লাভ করা: সম্ভবপর হইবে না। এই সময়ে" সিদ্ধার্থের চিত্তে ठूभूक्ष ञ्ज्ञांन्तानन চলিতেছি । একদিকে ত্যাগের গম্ভাব আহবান, অন্যদিকে সংসারের • DBDBBDK DL DBDDDDDD S KSLD BDBDBB S EBBD DuDBD DB uDD এইরূপ ঘাত প্ৰতিঘাত চলিতেছিল, তখন তিনি একদিন সংবাদ পাইলেন যে, তাহার প্ৰিয়তমা সহধৰ্ম্মিণী গোপী এক পুত্র প্রসব করিয়াছেন তিনি বুঝিলেন, স্নেহের একটি গৃহুন বন্ধন তাঁহারই জন্য সৃষ্ট হইয়াছে সিদ্ধাৰ্থ বুঝিতে পারিলেন আর বিলম্ব করা বিধেয় হইবে না, সকল মানবের দুঃখের বোঝা শিরে লইযা অবিলম্বে স”সার ত্যাশ করাই একমাত্র শ্ৰেয়ঃ। সিদ্ধাৰ্থ পিতাকে তঁহার সংসার ত্যাগের কাবণ ও সংকল্প নিবেদন করিলেন । পিতা কিছুতেই সন্মত্ব,হস্টিলেন না । তিনি তখন পিতাকে কহিলেন, “আপনি আমাকে চারিটি বর প্রদান করিলেই আদি সংসারে থাকিতে পারি। :--- (১) জরা যেন আমাব যৌবন নাশ করে না। *(২) ব্যাধি যেন আমাব স্বাস্থ্য হরণ করে না ।