প্রধান মেনু খুলুন

পাতা:ভারতীয় সাধক - শরৎকুমার রায়.pdf/৩৯

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


क्र S. মগধ, বঙ্গ, কলিঙ্গ, উৎকুল, কোশল, বারাণসী প্রভৃতি নানা রাজ্যে বুদ্ধদেব শিষ্যগণ সহ তাহাব সদধৰ্ম্ম প্রচাব করেন। আর্য্য ও অনাৰ্য্য সকলেই তাহার ধৰ্ম্ম গ্ৰহণ করিল। বুদ্ধেব বাণী’ ভাবতীয় পতিতদিশেব কৰ্ণে অ-য়ুমন্ত্র ਜਝੋਸ਼ এব” তাহাব প্ৰচাবিত ধৰ্ম্ম তাহাদিগকে আশ্ৰয়দান করিয়াছিল । থেবগাথায় একজন *থের নিজ মুখে আপনার জীবনকাহিনী এইরূপ ব্যক্তি করিয়াছেন :-"নীচকুলে আমাব জন্ম, আমি দীন-দবিদ ছিলামীট আমার ব্যবসাযও অতি নীচ ছিল, লোকে আমাকে অবজ্ঞা করিত। আমি অবনতম স্তকে সকলকে সুন্মান দেখাহতাম। অত:পর আমি ১ঠানগধু মগধে ভিক্ষুসমভিব্যাকারী মহাপুরুষ বুদ্ধদেবেব দশন পাই । র্তাeাপ দৰ্শনমন্ত্র আমার চিওঁ ভৰ্কিতে “অবনত হ'ল, আমি মাথার “বোঝা ছুডিযা - ফেলিয়া তাহার শ্ৰীপাদপদ্মে আত্মসমৰ্পণ কবিলাম । সেই ব্লুেকশ্রেষ্ঠ আমাব প্ৰতি করুণা কবিয়া দণ্ডায়মান ইহলো, আমি তাহাব অনুগামী শিষ্য হহঁধাব অধিকাব চাহিলাম। করুণাময় প্ৰভু তৎক্ষণাৎ, আমাকে সম্বোধন কবিয়া কছিলেন, “আইস, সাধু আমাপ সহিত আইসি ” ” বুদ্ধ অসঙ্কোচে পতিতা বারাঙ্গনা আমাগালীর গৃহে অল্প গ্ৰহণ করিয়াছিলেন ; তঁহার এই ব্যবহারেব তাৎপৰ্য্য গ্ৰহণ কবিতে না। পাবিয়া লিচ্চবিরাজগণ অসন্তোষ প্ৰদৰ্শন কয়ায়ও তুিনি কিছুমাত্র বিচলিত হন নাই । মহীপুকষের করুণার শুভ্র্যরশ্মিসম্পাতে পতিত নারীর চিত্ত শতকূল নিমেষমধ্যে প্রস্ফুটিত হইয়াছিল এবং তাহার মনােহর সুগন্ধ সমগ্ৰ বৌদ্ধ সমাজকে বিস্মিত করিয়াছিল। সকল মানবের বরণীয় এই মহাগুরু অনৰ্থকর জাতিভেদ, शनrशोब्रद, श्रमशोद्धव अङ्गठि অগ্রস্তু করিতেন, বলিয়াই উচ্চনীচ, ধনী-দরিদ্র, আৰ্য্য-অনাৰ্য্য সকলেরই চিত্তে তাহার বাণী অবঁধে প্রবেশ