পাতা:ভূতের বিচার - প্রিয়নাথ মুখোপাধ্যায়.pdf/২৫

এই পাতাটিকে বৈধকরণ করা হয়েছে। পাতাটিতে কোনো প্রকার ভুল পেলে তা ঠিক করুন বা জানান।

অষ্টম পরিচ্ছেদ।

২৫

পুলিসের পোষাক পরিয়া ঐ কার্য্যে নিযুক্ত হইবে; কারণ পুলিসের লোক ব্যতীত যে কোন ব্যক্তিকে উহার ভিতর পাওয়া যাইবে, তাহাকেই ধৃত ও অবরুদ্ধ করা হইবে।

 এইরূপ পরামর্শ স্থির হইলে, নানাস্থান হইতে নানা পুলিস-কর্ম্মচারী ও পুলিস-প্রহরী আনীত হইল। জেলার মধ্যস্থিত যে কোন গ্রামে ও থানায় যে কোন পুলিস কর্ম্মচারী ও কনষ্টেবল ছিল, সকলেই নির্দ্দিষ্ট দিনে সদরে আসিয়া উপস্থিত হইলেন। তৎব্যতীত নিকটবর্ত্তী জেলা সকল হইতেও অনেক পুলিসের আগমন হইল। যেস্থান হইতে যতগুলি ইংরাজ কর্ম্মচারীর সেই স্থানে উপস্থিত হইবার সম্ভাবনা, তাঁহারাও আসিয়া সেই স্থানে উপস্থিত হইলেন। আবেদ আলি পূর্ব্বেই সেই স্থান গোপনে দেখাইয়া দিয়াছিল, ঐ কয়েকজন কর্ম্মচারী গুপ্তবেশে সেই স্থানে গমন করিয়া ঐ জঙ্গল ও পুষ্করিণীর অবস্থা উত্তমরূপে দেখিয়া লইলেন।

 নির্দ্দিষ্ট দিনে সন্ধ্যার পরই সমস্ত পুলিস-কর্ম্মচারী সদর হইতে বাহির হইয়া আপন গন্তব্য স্থানে গমন করিতে লাগিলেন। যখন তাঁহারা সেই স্থানে গিয়া উপস্থিত হইলেন, তখন রাত্রি প্রায় ৩টা বাজিয়া গিয়াছিল। সেই সময় হইতেই তাঁহারা ঐ জঙ্গল ও পুষ্করিণীর চতুর্দ্দিক বেষ্টন করিতে আরম্ভ করিলেন। সকলের আপনাপন স্থান অধিকার করিতে প্রায় চারিটা বাজিয়া গেল। পাঁচটা বাজিবার সঙ্গে সঙ্গে চতুর্দ্দিক হইতে সকলে ক্রমে ক্রমে সেই জঙ্গলের ভিতর অগ্রসর হইতে লাগিলেন। তিন চারি হস্ত অন্তর এক এক জন লোক স্থাপিত করা হইয়াছিল, উহারা যাহাতে আপন আপন কার্য্য সুচারুরূপে সম্পন্ন করে, তাহা দেখিবার জন্য, প্রত্যেক দশজন কনষ্টবলের উপর একজন করিয়া দেশীয় কর্ম্মচারী নিযুক্ত হইয়াছিল। তাঁহাদিগের উপর এক একজন ইংরাজ কর্ম্মচারী। তৎকার্য্যে যতগুলি লোক নিযুক্ত হইয়াছিলেন, সকলেই সশস্ত্র। যিনি যে অস্ত্র উত্তমরূপে ব্যবহার করিতে পারিতেন, তাঁহাকে তাহাই প্রদান করা হইয়াছিল। কনষ্টেবলগণ লাঠি লইয়াছিল, কর্ম্মচারীদিগকে তরবারি, পিস্তল ও বন্দুক প্রদান করা হইয়াছিল।

 এইরূপে সকলে সেই জঙ্গল ভেদ করিয়া অগ্রসর হইতে লাগিল। ক্রমে ব্যাঘ্রশার্দ্দূলাদি ভীষণ বন্যজন্তুর সহিত সাক্ষাৎ হইল। উহাদের মধ্যে কেহ বা তাহাদের হস্তে নিধন প্রাপ্ত হইল, কেহ বা পলায়ন করিল।

 ঐ জঙ্গলের প্রায় মধ্যস্থলে উপনীত হইলে একটী বহু পুরাতন পুষ্করিণীর ধারে একখানি ক্ষুদ্র কুটীর দেখা গেল। চারিজন ইংরাজ-কর্ম্মচারী বন্দুক হস্তে ঐ কুটীরের নিকট গমন করিলেন। দেখিলেন, ঐ কুটীরখানি দুই অংশে বিভক্ত। এক অংশে তিনজন লোক, অপর অংশে একটী পুরুষ ও একটী স্ত্রীলোক। উহাদিগের নিকট অস্ত্র শস্ত্র থাকিলেও উহারা