পাতা:মানসিংহ - ভারতচন্দ্র রায়.pdf/৫৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা হয়েছে, কিন্তু বৈধকরণ করা হয়নি।

মানসিংহ।

৫৫

করিব তারে দরবারে লয়ে। রাজ্য দিব রামজীবনেরে তুষ্ট হয়ে অবিরোধে তার ঘরে থাকিব সচ্ছন্দে। রাজাই করিবে রাম জীবন আনন্দে॥ তিন পুত্র হবে তার প্রথম ভার্য্যার। রাজা রাম কৃষ্ণ রায় রঘুরাম রায়॥ গোপাল গোবিন্দ হবে অপর ভার্য্যায় তার মধ্যে রাজা হবে রঘুরাম রায়। ভূমিদান দয়া দর্পরাজ ধর্ম্ম বলে। রঘুবীর খ্যাত হবে ধরণী মণ্ডলে। তার পুত্র হবে কৃষ্ণচন্দ্র মতিমান। কাশীতে করিবে জ্ঞান বাপীর সোপান॥ বিগ্রহ ব্রহ্মণ্যদেব মূর্ত্তি প্রকাশিয়া। নিবাস করিবে শিবনিবাস করিয়া॥ আমার প্রতিমা পূজা প্রকাশ তাহাতে। কত কব তার যশ বুঝিবা ইহাতে॥ শাকে আগে মাতৃকা যোগিনীগণ শেষে। বরগীর বিভ্রাট হইবে এই দেশে॥ আলিবর্দ্দি কৃষ্ণচন্দ্রে ধরি লয়ে যাবে। নজরানা বলিবার লক্ষ টাকা চাবে॥ বর্দ্ধ করি রাখিবেক মুরশিদাবাদে। মোরে স্তুতি করিবেক পড়িয়া প্রমাদে॥ স্বপ্নে দেখা দিব অন্নপূর্ণারূপ হয়ে। এই গীতে পূজার পদ্ধতি দিব কয়ে॥ সভাসদ তাহার ভারত চন্দ্র রায়। ফুলের মুখটী নৃসিংহের অংশ তায়। ভূরিশিটে ভূপতি নরেন্দ্ররায় সুত। কৃষ্ণচন্দ্র পাশে রবে হয়ে রাজ্যচ্যুত। ব্যাকরণ অভিধান সাহিত্য নাটক। অলঙ্কার সঙ্গীত শাস্ত্রের অধ্যাপক॥ পুরাণ আগমবেত্তা নাগরী পারশী। দয়া করি দিব দিব্যজ্ঞানের আরশী॥ জ্ঞানবান হবে সেই আমার কৃপায়। এই গীত রচিবারে স্বপ্ন কব তায়॥ কৃষ্ণচন্দ্র আমার আজ্ঞার অনুসারে। রায় গুণাকর নাম দিবেক তাহারে॥ সেই এই অষ্ট মঙ্গলার অনুসারে। অষ্টাহ মঙ্গল প্রকাশিবেক সংসারে॥ ডীউসাই নীলমণি কণ্ঠ অভরণ। এই মঙ্গলের হবে