পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/২১১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পরিশেষ SSG যার মাঝে প্ৰকাশিল স্বগের নির্মল অভিরুচি - সেও কি অশুচি । বিধাতা প্ৰসন্ন যেথা আপনার হাতের সৃষ্টিতে নিত্য তার অভিষেক নিখিলের আশিস্যবৃষ্টিতে ।” জলভরা মেঘস্বরে এই কথা বলে তুমি গেলে চলে ! তার পর হতে এ ভঙ্গুর পাত্ৰখানি প্রতিদিন উষার আলোতে नाना दgeाँ उँनांकि, নানা চিত্ররেখা দিয়ে মাটি তার ঢাকি । হে মহান, নেমে এসে তুমি যারে করেছ গ্রহণ, সৌন্দর্যের অর্ঘ্য তার তোমা-পানে করুক বহন । ২৪ জুলাই ১৯৩২ আতঙ্ক বটের জটায় বাধা ছায়াতলে গোধূলিবেলায় বাগানের জীৰ্ণ পাচিলেতে সাদাকালো দাগগুলো দেখা দিত ভয়ংকর মূর্তি ধরে । ওইখানে দৈত্যপুরী, অদৃশ্য কুঠরি থেকে তার মনে-মনে শোনা যেত ইউমাউইখাউ । লাঠি হাতে কুঁজ্যোপিঠ। খিলিখিলি হাসত ডাইনিবুড়ি । কাশীরাম দাস পয়ারে যা লিখেছিল। হিড়িম্বার কথা ইট-বোর-করা সেই পাচলির পরে ছিল তার প্রত্যক্ষ কাহিনী । তারি সঙ্গে সেইখানে নাক,কাটা সূৰ্পণখা কালো কালো দাগে করেছিল কুটুম্বিতা । সতেরো বৎসর পরে গিয়েছি সে সাবেক বাড়িতে । দাগ বেড়ে গেছে, মুন্ধ নতুনের তুলি পুরোনোকে দিয়েছে প্রশ্ৰয় । ইটগুলো মাঝে-মাঝে খসে গিয়ে পড়ে আছে রাশকরা ।