পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/২৮০

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


NRNeSR S v9.2 s ovos রবীন্দ্ৰ-রচনাবলী সকালে রবারের নল নিয়ে তারা ডেকা ধোয়, ও তাদের মধ্যে গিয়ে লাফালাফি করে, তার হাসে । ওদের মধ্যে ছিল এক অল্প বয়সের ছেলে শামলা রঙ, কালো চোখ, বঁকড়া চুল, ছিপছিপে গড়নও তাকে এনে দেয়। আপেল কমললেবু, তাকে দেখায় ছবির বই ৷ যাত্রীরা রাগ করে য়ুরোপের অসম্মানে । জাহাজ এল শিঙাপুরে । খালাসিদের ডেকে ও তাদের দিল সিগারেট, আর দশটা করে টাকার নোট । ছেলেটাকে দিলে একটা সোনা-বাবধানো ছড়ি । কাপ্তোনের কাছে বিদায় নিয়ে তড়বড় করে নেমে গেল ঘাটে । তখন তার আসল নাম হয়ে গেল জানাজানি ; যারা চুরোট ফোকার ঘরে তাস খেলত “হায় হয়’ করে উঠল তাদের মন । বিশ্বশোক দুঃখের দিনে লেখনীকে বলি লজা দিয়ে না । সকলের নয় যে আঘাত GG3 n ><3, CDGR | ঢেকে না মুখ অন্ধকারে, রেখো না দ্বারে আগলি দিয়ে । জ্বালো সকল রঙের উজ্জ্বল বাতি, কৃপণ হােয়ো না । অতি বৃহৎ বিশ্ব, অম্লান তার মহিমা, অক্ষুব্ধ তার প্রকৃতি । মাথা তুলেছে দুর্দশ সূর্যলোকে, অবিচলিত অকরুণ দৃষ্টি তার অনিমেষ, অকম্পিত বাক্ষ প্রসারিত fssB SF SEG |