পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/২৮৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পুনশ্চ। জামবাগানের তলায় চরে ধোবাদের গাধা, ছেলেটা তার পিঠে চড়ে ছড়ি হাতে জমায় ঘোড়দৌড় । ধোবাদের গান্ধাটা আছে কাজের গরজে ছেলেটার নেই কোনো দরকার, তাই জন্তটা তার চার পা নিয়ে সমস্তটা তারই, याई बव्नून-नां खखनादश्व । বাপ মা চায় পড়ে শুনে হবে সে সদর-আলো ; সর্দার পোড়ো ওকে টেনে নামায় গাধার থেকে, হেঁচড়ে আনে বঁাশবন দিয়ে, হাজির করে পাঠশালায় । মাঠে ঘাটে হাটে বাটে জলে স্থলে তার স্বরাজ হঠাৎ দেহটাকে ঘিরলে চার দেয়ালে, মনটাকে আঠা দিয়ে ঐক্সটে দিলে পুঁথির পাতার গায়ে । আমিও ছিলেম একদিন ছেলেমানুষ । আমার জন্যেও বিধাতা রেখেছিলেন গড়ে অকৰ্মণ্যের অপ্ৰয়োজনের জল স্থল আকাশ । তবু ছেলেদের সেই মন্ত বড়ো জগতে মিলল না। আমার জায়গা । GKSS VIGS বাইরে যাওয়া মানা । গুন গুন করে গায় মধুকানের গান ; শান-বাধানো মেজে, খড়খড়ে-দেওয়া জানলা । নীচে ঘাট-বাধানো পুকুর, পাচিল ঘেঁষে নারকেল গাছ । জটাধারী বুড়ো বট মোটা মোটা শিকড়ে আঁকড়ে ধরেছে। পুব ধারটা । সকাল থেকে নাইতে আসে পাড়ার লোকে, ভেসে বেড়ায় পাতিহাসগুলো, পাখা সাফ করে ঠোঁট দিয়ে মেজে । প্ৰহরের পর কাটে প্রহর । আকাশে ওড়ে চিল, বাধানো নালা দিয়ে গঙ্গার জল এসে পড়ে পুকুরে । পৃথিবীতে ছেলেরা যে খোলা জগতের যুবরাজ আমি সেখানে জন্মেছি গরিব হয়ে । SVA