পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/৩২৩

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পুনশ্চ দুদিন গেল কেটে । শঙ্কর এল রঙরেজির ঘরে । শুধালো, পাগড়িতে কার হাতের লেখা ? জসীমের ভয় লাগল মনে । অবুঝ আমার মেয়ে, মাপ করো ছেলেমানুষি DG rNg gerpN9g সেখানে এ লেখা কেউ দেখবে না, কেউ বুঝবে না ।” শঙ্কর আমিনার দিকে চেয়ে বললে, ‘রঙরেজিনী, অহংকারের-পাকে-ঘেরা ললাট থেকে নামিয়ে এনেছি শ্ৰীচরণের স্পর্শখানি হৃদয়তলে তোমার হাতের রাঙা রেখার পথে । রাজবাড়ির পথ আমার হারিয়ে গেল, আর পাব না খুঁজে ।” বরানগর SRG VONSERTS Sveo Soa মুক্তি বাজিরাও পেশোয়ার অভিষেক হবে কাল সকালে । কীর্তনী এসেছে গ্রামের থেকে, 7 মন্দিরে ছিল না। তার স্থান । সে বসেছে অঙ্গনের এক কোণে পিপুল গাছের তলায় । একতারা বাজায় আর কেবল সে ফিরে ফিরে বলে, “ঠাকুর, তোমায় কে বসালো কঠিন সোনার সিংহাসনে ৷” রাত তখন দুই প্রহর, শুক্লপক্ষের চাদ গেছে অন্তে । দূরে রাজবাড়ির তোরণে বাজছে শাখা শিঙে জগকাম্প, জ্বলছে প্ৰদীপের মালা । কীর্তনী গাইছে, “তমালাকুজে বনের পথে New YNG KI PAN SIGN, W9062