পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/৩৩৭

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


পুনশ্চ খৃস্ট বুকে হাত চেপে ধরলেন ; বুঝলেন শেষ হয় নি। তার নিরবচ্ছিন্ন মৃত্যুর মুহুর্ত, <GGg 'ang NGSt” মানবপুত্র যন্ত্রণায় বলে উঠলেন উদ্ধের্ব চেয়ে, “হে ঈশ্বর, হে মানুষের ঈশ্বর, কেন আমাকে ত্যাগ করলে ।” [ শ্রাবণ ১৩৩৯ ] brl|NY fအဲရဲနျ\5iဈf রাত কত হল ? উত্তর মেলে না । কেননা, অন্ধ কাল যুগ-যুগান্তরের গোলকধাধায় ঘোরে, পথ অজানা, পথের শেষ কোথায় খেয়াল নেই । পাহাড়তলিতে অন্ধকার মৃত রাক্ষসের চক্ষুকোটরের মতো; ভূপে ভূপে মেঘ আকাশের বুক চেপে ধরেছে ; পুঞ্জ পুঞ্জ কালিমা গুহায় গর্তে সংলগ্ন, মনে হয় নিশীথরাত্রের ছিন্ন অঙ্গ-প্ৰত্যঙ্গ ; দিগন্তে একটা আগ্নেয় উগ্ৰতা ক্ষণে ক্ষণে জ্বলে আর নেভেও কি কোনো অজানা দুষ্টগ্রহের চোখ-রাঙানি । ও কি কোনো অনাদি ক্ষুধার লেলিহ লোলজিহবা । বিক্ষিপ্ত বস্তুগুলো যেন বিকারের প্রলাপ, অসম্পূর্ণ জীবলীলার ধুলিবিলীন উচ্ছিষ্ট ; তারা অমিতাচারী দপ্ত প্ৰতাপের ভগ্ন তোরণ, অকস্মাৎ উচ্চণ্ড কলরব আকাশে আবর্তিত আলোড়িত হতে থাকেও কি বন্দী বন্যাবারির গুহাবিদারণের রিলরোল । ও কি ঘূর্ণতাণ্ডবী উন্মাদ সাধকের রুদ্রমন্ত্ৰ-উচ্চারণ। ও কি দাবাগ্নিবেষ্টিত মহারণ্যের আত্মঘাতী প্ৰলয়নিনাদ । ܠ ܠ ܘ