পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/৪৫৮

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


88 to রবীন্দ্ৰ-রচনাবলী রসিক । আর-কোনো আপত্তি নেই, কেবল একটু ব্যাকরণের আপত্তি । কুমার-সভায় কেউ যদি কুমারীবেশে আসেন তা হলে বোপদেবের অভিশাপ । শৈলবালা । বোপদেবের অভিশাপ এ কালে খাটে না । রসিক । আচ্ছা, অন্তত লোহারামকে তো বঁচিয়ে চলতে হবে ? আমি তো বোধ করি, স্ত্রীসভ্যরা যদি পুরুষসভ্যদের অজ্ঞাতসারে বেশ ও নাম পরিবর্তন করে আসেন তা হলে সহজে নিম্পত্তি হয়। শ্ৰীশ । তা হলে একটা কৌতুক এই হয় যে, কে স্ত্রী কে পুরুষ নিজেদের এই সন্দেহটা থেকে যায়বিপিন । আমি বোধ হয় সন্দেহ থেকে নিষ্কৃতি পেতে পারি। রসিক । আমাকেও বোধ হয় আমার নাতনী বলে কারও হঠাৎ আশঙ্কা না হতে পারে । শ্ৰীশ । কিন্তু অবলাকান্তবাবু সম্বন্ধে একটা সন্দেহ থেকে যায়। শৈল অদূরবতী টিপাই হইতে মিষ্টাল্পের থালা আনিতে প্ৰস্থান করিল চন্দ্ৰবাবু। দেখুন রসিকবাবু, ভাষাতত্ত্বে দেখা যায়, ব্যবহার করতে করতে একটা শব্দের মূল অর্থ লোপ পেয়ে বিপরীত অর্থ ঘটে থাকে । স্ত্রীসভ্য গ্ৰহণ করলে চিরকুমার-সভার অর্থের যদি পরিবর্তন ঘটে তাতে ক্ষতি কী । রসিক । কিছু না। আমি পরিবর্তনের বিরোধী নই— তা নামপরিবর্তন বা বেশপরিবর্তন যাই হােক-না কেন, যখন যা ঘটে আমি বিনা বিরোধে গ্রহণ করি বলেই আমার প্রাণটা নবীন আছে। মিষ্টান্ন শেষ হইল এবং শ্ৰীসভ্য লওয়া সম্বন্ধে কাহারও আপত্তি হইল না। রসিক । আশা করি সভার কাজের কোনো ব্যাঘাত হয় নি । শ্ৰীশ । কিছু না- অন্যদিন কেবল মুখেরই কাজ চলত, আজ দক্ষিণ হস্তও যোগ দিয়েছে। বিপিন । তাতে আভ্যন্তরিক তৃপ্তিটা কিছু বেশি হয়েছে। আজ তা হলে এইখানেই সভা ভঙ্গ করা হােক, কারণ এর পরে আর-কোনো আলোচনা চলবে না । এ দিকে দেরিও হয়ে গেছে । [সকলের প্রস্থান छूऊँीश अक প্রথম দৃশ্য অক্ষয়ের বাসা অক্ষয়, নীর ও নৃপ নীরর গান (ACSMS (SA তুমি যেয়ে না, যেয়ো নাআমার, বাদলের গান হয় নি। সারা । কুটিরে কুটিরে বন্ধ দ্বার, নিভৃত রজনী অন্ধকার, বনের অঞ্চল কাপে চঞ্চল অধীর সমীর তন্দ্ৰাহারা । অক্ষয়। হল কী বলে দেখি। আমার যে ঘরটি এতকাল কেবল ঝড় বেহারিার ঝাড়নের তাড়নে নির্মল ছিল, সেই ঘরের হাওয়া দুবেলা তোমাদের দুই বোনের অঞ্চলবীজনে চঞ্চল হয়ে উঠছে যে ।