পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/৪৭৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিরকুমার-সভা 86ሱwS) শ্ৰীশ । যায় তো যাক-না । কোনোমতে লোহার তার ঐটে মাথাটাকে ঠিক জায়গায় ধরে রাখাই কি জীবনের চরম পুরুষাৰ্থ । মাঝে মাঝে মাথার বেঠিক না হলে রাত দিন মুটের বোঝার মতো মাথাটাকে বয়ে বেড়াচ্ছি কেন । দাও ভাই তার কেটে, একবার উড়ুক । সেদিন তোমাকে শোনাচ্ছিলুম— ওরে সাবধানী পথিক, ব্যারেক, পথ ভুলে মরফিরে । খোলা আঁখি দুটাে অন্ধ করে দে আকুল আঁখির নীরে । সে ভোলা পথের প্রান্তে রয়েছে। হারানো হিয়ার কুঞ্জ রক্তকুসুমপুঞ্জ, সেথা দুই বেলা ভাঙা-গড়া খেলা অকুলসিন্ধুতীরে । ওরে সাবধানী পথিক, ব্যারেক পথ ভুলে মরফিরে । বিপিন । আজকাল তুমি খুব কবিতা পড়তে আরম্ভ করেছ, শীঘ্রই একটা মুশকিলে পড়বে দেখছি। শ্ৰীশ । যে লোক ইচ্ছে করে মুশকিলের রাস্তা খুঁজে বেড়াচ্ছে তার জন্যে কেউ ভেবো না । মুশকিলকে এড়িয়ে চলতে গিয়ে হঠাৎ মুশকিলের মধ্যে পা ফেললেই বিপদ। আসুন আসুন রসিকবাবু, রাত্রে পথে বেরিয়েছেন যে ! রসিকের প্রবেশ রসিক । আমার রােতই বা কী, আর দিনই বা কী বরামসেী দিবসো ন পুননিশা ননু নিশৈব বরং ন পুনর্দিনাম। উভয়মেতদুপৈত্বিথবা ক্ষয়ং। প্রিয়জনেন ন যাত্র সমাগমঃ । শ্ৰীশ । অস্যাৰ্থঃ ? রসিক । অস্যার্থ হচ্ছে আসে তো আসুক রাতি, আসুক বা দিবা, যায়। যদি যাক নিরবধি । তাহাদের যাতায়াতে আসে যায় কিবা প্রিয় মোর নাহি আসে যদি । অনেকগুলো দিন রাত এ-পর্যন্ত এসেছে এবং গেছে, কিন্তু তিনি আজ পর্যন্ত এসে পৌঁছলেন না- তাই, দিনই বলুন আর রােতই বলুন, ও দুটাের পরে আমার আর কিছুমাত্র শ্রদ্ধা নেই। শ্ৰীশ । আচ্ছা রসিকবাবু, প্ৰিয়জন এখনই যদি হঠাৎ এসে পড়েন । রসিক । তা হলে আমার দিকে তাকবেন না, তোমাদের দুজনের মধ্যে একজনের ভাগেই পড়বেন। শ্ৰীশ । তা হলে তদণ্ডেই তিনি অরসিক বলে প্রমাণ হয়ে যাবেন । রসিক । এবং পর্যুদণ্ডেই পরমানন্দে কালব্যাপন করতে থাকবেন । তা, আমি ঈর্ষা করতে চাই নে শ্ৰীশবাবু। আমার ভাগ্যে যিনি আসতে বহু বিলম্ব করলেন আমি তাকে তোমাদের উদ্দেশেই উৎসর্গ করলুম। দেবী, তোমার বরমাল্য গেথে আনো । আজ বসন্তের শুক্লরজনী, আজ অভিসারে এসো -