পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/৪৯২

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


8Գ Օ রবীন্দ্র-রচনাবলী পূর্ণ। (নিকটে আসিয়া) সেদিন বেলুন উড়েছিল, আপনি কি ছাদের উপর থেকে দেখতে পেয়েছিলেন। নির্মলা । বেলুন ? পূর্ণ। হা, ঐ বেলুন (সকলে নিরুত্তর)— রসিকবাবু বলছিলেন। আপনি বোধ হয় দেখে থাকবেন, আমাকে মাপ করবেন- আপনাদের আলোচনায় আমি ভঙ্গ দিলুম- আমি অত্যন্ত হতভাগ্য । 9AN VE প্রথম দৃশ্য অক্ষয়ের বাসা অক্ষয় ও পুরবালা অক্ষয় । দেবী, যদি অভয় দাও তো একটি প্রশ্ন আছে । পুরবালা। কী শুনি । অক্ষয় । শ্ৰীঅঙ্গে কৃশতার তো কোনো লক্ষণ দেখছি নে ! পুরবালা । শ্ৰীঅঙ্গ তো কৃশ হবার জন্যে পশ্চিমে বেড়াতে যায় নি । অক্ষয় । তবে কি বিরহবেদনা বলে জিনিসটা মহাকবি কালিদাসের সঙ্গে সহমরণে মরেছে। পুরবালা । তার প্রমাণ তুমি । তোমারও তো স্বাস্থ্যের বিশেষ ব্যাঘাত হয় নি দেখছি। অক্ষয় । হতে দিল কই । তোমার তিন ভগ্নী মিলে অহরহ আমার কৃশতা নিবারণ করে রেখেছিলবিরহ যে কাকে বলে সেটা আর কোনোমতেই বুঝতে দিলে না। — "이 বিরহে মরিব বলে ছিল মনে পণকে তোরা বাহুতে বাধি করিলি বারণ । —প্রিয়ে, কাশীধামে বুঝি পঞ্চশর ত্ৰিলোচনের ভয়ে এগোতে পারেন না । পুরবালা । তা হতে পারে, কিন্তু কলকাতায় তো তার যাতায়াত আছে। অক্ষয় । তা আছে- কোম্পানির শাসন তিনি মানেন না, আমি তার প্রমাণ পেয়েছি। নৃপবালা ও নীরবালার প্রবেশ নীরবালা । দিদি । অক্ষয় । এখন দিদি বৈ আর কথা নেই, অকৃতজ্ঞ ! দিদি যখন বিচ্ছেদদহনে উত্তরোত্তর তপ্তকাঞ্চনের মতো শ্ৰী ধারণ করছিলেন তখন তোমাদের কাটিকে সুশীতল করে রেখেছিল কে । নীরবালা । শুনিছ দিদি। এমন মিথ্যে কথা ! তুমি যতদিন ছিলে না। আমাদের একবার ডেকেও জিজ্ঞাসা করেন নি, কেবল চিঠি লিখেছেন আর টেবিলের উপর দুই পা তুলে দিয়ে বই হাতে করে পড়েছেন । তুমি এসেছি, এখন আমাদের নিয়ে গান হবে, ঠাট্টা হবে, দেখাবেন যেন নৃপবালা। দিদি, তুমিও তো ভাই, এতদিন আমাদের একখানিও চিঠি লেখ নি । পুরবালা । আমার কি সময় ছিল ভাই। মাকে নিয়ে দিন রাত ব্যস্ত থাকতে হয়েছিল। অক্ষয় । যদি বলতে “তোদের ভগ্নীপতির ধ্যানে নিমগ্ন ছিলুম তা হলে কি লোকে নিন্দে করত । নীরবালা । তা হলে ভগ্নীপতির আম্পর্ধ আরো বেড়ে যেত। মুখুজেমশায়, তুমি তোমার বাইরের ঘরে যাও-না। দিদি এতদিন পরে এসেছেন, আমরা কি ওঁকে নিয়ে একটু গল্প করতে পাব না।