পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/৫০৫

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিরকুমার-সভা 8) । বাঃ, বেশ ! কিন্তু শ্ৰীশ, শেলফের কাছে তুমি কী খুঁজে বেড়ােচ্ছ। সেই- যে সেদিন যে বইটাতে নাম লেখা দেখেছিলাম সেইটে। না ভাই, আজ ও-সব নয় । । दै-जद नग्न । বিপিন । তাদের কথা নিয়ে কোনো রকম শ্ৰীশ । কী আশ্চর্য বিপিন । তাদের কথা নিয়ে আমি কি এমন কোনো আলোচনা করতে পারি যাতে বিপিন । রাগ কোরো না ভাই- আমি নিজের সম্বন্ধেই বলছি, এই ঘরেই আমি অনেক সময় রসিকবাবুর সঙ্গে তাদের বিষয়ে যে ভাবে আলাপ করেছি, আজ সে ভাবে কোনো কথা উচ্চারণ করতেও সংকোচ বোধ হচ্ছে- বুঝছি না শ্ৰীশ । কেন বুঝব না । আমি কেবল একখানি বই খুলে দেখবার ইচ্ছে করেছিলুম মাত্ৰ— একটি কথাও উচ্চারণ করতুম না বিপিন । না, আজ তাও না । আজ তারা আমাদের সম্মুখে বেরোবেন, আজ আমরা যেন তার যোগ্য থাকতে পারি । শ্ৰীশ । বিপিন, তোমার সঙ্গে— বিপিন । না ভাই, আমার সঙ্গে তর্ক কোরো না, আমি হারলুম- কিন্তু বইটা রাখো । রাসিকের প্রবেশ রসিক । এই-যে আপনারা এসে একলা বসে আছেন- কিছু মনে করবেন নাশ্ৰীশ । কিছু না । এই ঘরটি আমাদের সাদর সম্ভাষণ করে নিয়েছিল। রসিক । আপনাদের কত কষ্ট দেওয়া গেল । শ্ৰীশ । কষ্ট আর দিতে পারলেন কই । একটা কষ্টের মতো কষ্ট স্বীকার করবার সুযোগ পেলে কৃতাৰ্থ হতুমি । রসিক । যা হােক, অল্পক্ষণের মধ্যে চুকে যাবে এই এক সুবিধে । তার পরেই আপনার স্বাধীন। ভেবে দেখুন দেখি, যদি এটা সত্যকার ব্যাপার হত তা হলেই "পরিণামে বন্ধনভয়ম । বিবাহ জিনিসটা মিষ্টান্ন দিয়েই শুরু হয়, কিন্তু সকল সময় মধুরেণ সমাপ্ত হয় না। আচ্ছা, আজ। আপনারা দুঃখিতভাবে এরকম চুপচাপ করে বসে আছেন কেন বলুন দেখি। আমি বলছি, আপনাদের কোনো ভয় নেই। আপনারা বনের বিহঙ্গ, দুটিখানি সন্দেশ খেয়েই আবার বনে উড়ে যাবেন- কেউ আপনাদের বাধবে না। নাত্র ব্যাধশরাঃ পতন্তি পরিতো। নৈবাত্র দাবানলঃ । দাবানলের পরিবর্তে ডাবের জল পাবেন । শ্ৰীশ । আমাদের সে দুঃখ নয় রসিকবাবু, আমরা ভাবছি- আমাদের দ্বারা কতটুকু উপকারই বা হচ্ছে। ভবিষ্যতের সমস্ত আশঙ্কা তো দূর করতে পারছি নে । রসিক । বিলক্ষণ ! যা করছেন তাতে আপনারা দুটি অবলাকে চিরকৃতজ্ঞতাপাশে বদ্ধ করছেন- অথচ নিজেরা কোনোপ্রকার পাশেই বদ্ধ হচ্ছেন না । জগত্তারিণী। (নেপথ্যে মৃদুস্বরে) আঃ, নেপো কী ছেলেমানুষ করছিস । শিগগির চােখের জল মুছে ঘরের মধ্যে যা, লক্ষ্মী মা আমার- কেঁদে চোখ লাল করলে কী রকম ছিরি হবে ভেবে দেখ দেখি ।-- নীরো যা না । তোদের সঙ্গে আর পারি। নে বাপু । ভদ্রলোকদের কতক্ষণ বসিয়ে রাখবি । কী মনে করবেন। শ্ৰীশ। ঐ শুনেছেন রসিকবাবু ? এ অসহ্য । এর চেয়ে রাজপুতদের কন্যাহত্যা ভালো । বিপিন। রসিকবাবু, ঐদের এই সংকট থেকে সম্পূর্ণ রক্ষা করবার জন্যে আপনি আমাদের যা বলবেন আমরা তাতেই প্ৰস্তুত আছি । রসিক। কিছু না, আপনাদের আর অধিক কষ্ট দেব না। কেবল আজকের দিনটা উত্তীর্ণ করে দিয়ে যান, তার পরে আপনাদের আর-কিছুই ভাবতে হবে না।