পাতা:রবীন্দ্র-রচনাবলী (অষ্টম খণ্ড) - সুলভ বিশ্বভারতী.pdf/৫১১

এই পাতাটির মুদ্রণ সংশোধন করা প্রয়োজন।


চিরকুমার-সভা 8 FS १ाँ। ईश। বিপিন । আপনাকে একটু শুকনো দেখাচ্ছে। १ाँ। ना, किछू ना । শ্ৰীশ । আপনাদের পরীক্ষার আর তো দেরি নেই । १ाँ। ना । নৃপবালা ও নীরবালাকে লইয়া অক্ষয়ের প্রবেশ অক্ষয় । (নৃপবালা ও নীরবালার প্রতি) ইনি চন্দ্রবাবু, ইনি তোমাদের শুরুজন, এঁকে প্ৰণাম করো । (নৃপ ও নীরর প্রণাম) চন্দ্ৰবাবু, নূতন নিয়মে আপনাদের সভায় এই দুটি সভ্য বাড়ল । চন্দ্ৰবাবু। বড়ো খুশি হলেম । এঁরা কে । অক্ষয় । আমার সঙ্গে এঁদের সম্বন্ধ খুব ঘনিষ্ঠ । এঁরা আমার দুটি শ্যালী । শ্ৰীশবাবু এবং বিপিনবাবুর ঐদের সম্বন্ধ শুভলগ্নে আরো ঘনিষ্ঠতর হবে । এঁদের প্রতি দৃষ্টি করলেই বুঝবেন, রসিকবাবু এই যুবক—দুটির যে মতের পরিবর্তন করিয়েছেন সে কেবলমাত্র বান্বিতার দ্বারা নয় । চন্দ্ৰবাবু। বড়ো আনন্দের কথা । পূৰ্ণবাবু। শ্ৰীশবাবু, বড়ো খুশি হলুম। বিপিনবাবু, আপনাদের বড়ো সৌভাগ্য। আশা করি অবলাকান্তবাবুও বঞ্চিত হন নি, তারও একটি নির্মলার প্রবেশ চন্দ্ৰবাবু । নির্মলা, শুনে খুশি হবে, শ্ৰীশবাবু এবং বিপিনবাবুর সঙ্গে এঁদের বিবাহের সম্বন্ধ স্থির হয়ে গেছে। তা হলে কুমারব্ৰত উঠিয়ে দেওয়া সম্বন্ধে প্ৰস্তাব উত্থাপন করাই বাহুল্য । নির্মলা । কিন্তু অবলাকাস্তবাবুর মত তো নেওয়া হয় নি- তাকে এখানে দেখছি নেচন্দ্ৰবাবু। ঠিক কথা, আমি সেটা ভুলেই গিয়েছিলুম।— তিনি আজ এখনো এলেন না কেন । রসিক । কিছু চিন্তা করবেন না, তার পরিবর্তন দেখলে আপনারা আরো আশ্চর্য হবেন । অক্ষয় । চন্দ্ৰবাবু, এবারে আমাকেও দলে নেবেন । সভাটি যেরকম লোভনীয় হয়ে উঠল এখন আমাকে ঠেকিয়ে রাখতে পারবেন না । চন্দ্ৰবাবু। আপনাকে পাওয়া আমাদের সৌভাগ্য । অক্ষয় । আমার সঙ্গে সঙ্গে আর-একটি সভ্যও পাবেন । আজকের সভায় তাকে কিছুতেই উপস্থিত করতে পারলেম না । এখন তিনি নিজেকে সুলভ করবেন না-বাসরঘরে ভূতপূর্বকুমার-সভাটিকে সাধ্যমত পিণ্ডদান করে তার পরে যদি দেখা দেন। এইবার অবশিষ্ট সভ্যটি এলেই আমাদের চিরকুমার-সভা সম্পূর্ণ সমাপ্ত হয় । শৈলবালার প্রবেশ শৈলবালা । (চন্দ্ৰবাণুক প্ৰণাম করিয়া) আমাকে ক্ষমা করবেন। শ্ৰীশ । এ কী, অবলাকান্তবাবুঅক্ষয় । আপনারা মত-পরিবর্তন করেছেন, ইনি বেশ-পরিবর্তন করেছেন মাত্র । রসিক । শৈলজা ভবানী এতদিন কিরাত বেশ ধারণ করেছিলেন, আজ ইনি আবার তপস্বিনীবেশ গ্ৰহণ করলেন । চন্দ্ৰবাবু। নির্মলা, আমি কিছুই বুঝতে পারছি নে । নির্মলা । অন্যায় ! ভারি অন্যায় ! অবলাকান্তবাবুঅক্ষয় । নির্মলা দেবী ঠিক বলেছেন- অন্যায় । কিন্তু, সে বিধাতার অন্যায় । এঁর অবলাকান্ত হওয়াই